kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ আগস্ট ২০২২ । ১ ভাদ্র ১৪২৯ । ১৭ মহররম ১৪৪৪

বরসহ তিনজনকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

২৬ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বরসহ তিনজনকে ছয় মাসের কারাদণ্ড

বাগেরহাটের শরণখোলায় বয়স বাড়িয়ে গোপনে বিয়ে দেওয়া হচ্ছিল ১৭ বছর বয়সী এক এসএসসি পরীক্ষার্থী ছাত্রীর। এ খবর জানতে পেরে প্রশাসনের লোকজন গিয়ে হাজির হন বিয়ের আসরে। পরে ভ্রম্যমাণ আদালত চালিয়ে বর, বরের মামা ও চাচাকে ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। গতকাল শনিবার বিকেলে উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের চালিতাবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বিজ্ঞাপন

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার হোগলপাতি গ্রামের জিহাদুল ইসলামের ছেলে মো. জুবায়ের (২০), জুবায়েরের চাচা একই গ্রামের মৃত আ. হক ফকিরের ছেলে নূরুজ্জামান ফকির (৩০) ও মামা শরণখোলার চালিতাবুনিয়া গ্রামের আ. খালেক তালুকদারের ছেলে বাদল তালুকদার (৫০)। ঘটনার সময় মেয়ের বাবা পালিয়ে যাওয়ায় তাঁকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নূর-ই আলম সিদ্দিকী বলেন, ‘ছেলের মামা খালেক তালুকদার এই ব্যালবিবাহের আয়োজক। তিনি তাঁর ভাগ্নে জুবায়েরের সঙ্গে এক স্কুলছাত্রীর বিয়ে দিচ্ছিলেন। মেয়ের বাড়িতে অতি গোপনে বিয়ে সম্পন্ন করার চেষ্টা চালাচ্ছিলেন। তবে আমরা গোপন সূত্রে বাল্যবিবাহের খবর পেয়ে ওই বাড়িতে অভিযান চালাই। এ সময় বর, বরের মামা ও চাচাকে আটক করা হয়। তবে মেয়ের বাবা পালিয়ে যাওয়ায় তাঁকে আটক করা সম্ভব হয়নি। বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন-২০১৭ অনুযায়ী আটকদের ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ’



সাতদিনের সেরা