kalerkantho

শুক্রবার । ১ জুলাই ২০২২ । ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ । ১ জিলহজ ১৪৪৩

হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তাসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা

দুর্গাপুরে নারী কর্মীর অবসর ভাতা আত্মসাৎ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

২৩ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মারা যাওয়া এক নারী পরিচ্ছন্নতাকর্মীর অবসর ভাতা আত্মসাতের অভিযোগে রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার হিসাবরক্ষণ ও তথ্য প্রদান কর্মকর্তাসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) রাজশাহীর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আমির হোসাইন গতকাল বুধবার রাজশাহী ও দায়রা জজ আদালতে এই মামলা করেন।

দুর্গাপুর উপজেলার দুর্গাপুর কালীদহ গ্রামের জহুরুল হক (৬৫), উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা ও তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা বাবলুর রহমান (৫২) এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের হিসাব সহকারী মো. আফসার আলীর (৫৪) বিরুদ্ধে এই মামলা হলো।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানার ধরমপুর গ্রামের কাজল রেখা ওরফে জয়নব (৪১) তাঁর মা রাবেয়া খাতুনের অবসর ভাতার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ তোলেন।

বিজ্ঞাপন

রাবেয়া দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে চাকরি করতেন। তিনি চাকরিরত থাকা অবস্থায় সব পাওনা উত্তোলনের জন্য একমাত্র মেয়ে জয়নবকে নমিনি করেন।

মামলায় বলা হয়, স্বামী মারা যাওয়ায় জহুরুল হকের সঙ্গে রাবেয়ার দ্বিতীয় বিয়ে হয়। এতে জয়নব তাঁর মায়ের সঙ্গে জহুরুল হকের বাসায় থাকতেন। এ কারণে তিনি জাতীয় পরিচয়পত্রে তাঁর বাবা প্রয়াত আব্দুল জলিলের পরিবর্তে জহুরুল হকের নাম লেখেন। জহুরুল হক দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে নৈশ প্রহরী পদে চাকরি করেন। এই সুবাদে জহুরুল অন্য দুই আসামির যোগসাজশে জয়নবের মায়ের অবসর ভাতা আত্মসাৎ করেন।

এ বিষয়ে দুদকের রাজশাহীর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমির হোসাইন বলেন, প্রাথমিক তদন্তে ওই তিন ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রয়াত নারী পরিচ্ছন্নতাকর্মীর অবসর ভাতা আত্মসাতের প্রমাণ পাওয়া গেছে। তাই তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। বিষয়টি আরো তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।



সাতদিনের সেরা