kalerkantho

রবিবার । ৩ জুলাই ২০২২ । ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ । ৩ জিলহজ ১৪৪৩

ভুল চিকিৎসায় অন্তঃসত্ত্বার মৃত্যুর অভিযোগ

ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

২৭ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভুল চিকিৎসায় লাইলী বেগম (৩৯) নামের এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর ক্লিনিকটির চিকিৎসক, নার্স ও মালিক পালিয়ে গেছেন। গত বুধবার রাতে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অদূরে অবস্থিত মা ক্লিনিক অ্যান্ড হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

লাইলী বেগম উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের খানুরবাড়ী গ্রামের মো. আকতার হোসেনের স্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

তাঁর স্বজনরা জানায়,  প্রসব বেদনা শুরু হলে বুধবার রাতে লাইলী বেগমকে ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির জন্য নেওয়া হয়। রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সেখানে কর্মরত চিকিৎসক তাঁকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। এ সময় মা ক্লিনিক অ্যান্ড হাসপাতালের কর্মচারী শামসু ফুসলিয়ে প্রসূতিকে তাঁদের ক্লিনিকে নিয়ে যান। সেখানে সার্জারি চিকিৎসক ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. এনামুল হক সোহেল ও অ্যানেসথেসিয়া চিকিৎসক ডা. আল মামুন তাঁর অস্ত্রোপচার শুরু করেন। এক পর্যায়ে রোগী অপারেশন টেবিলেই মারা গেলে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ স্বজনদের না জানিয়ে রোগীকে অ্যাম্বুল্যান্সে করে টাঙ্গাইলে পাঠানোর চেষ্টা করে। বিষয়টি জানাজানি হলে চিকিৎসক ও নার্সসহ ক্লিনিকের লোকজন পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ক্লিনিক থেকে লাইলী বেগমের লাশ উদ্ধার করে। নিহতের স্বামী আকতার হোসেন বলেন, ‘ভুল চিকিৎসায় আমার স্ত্রী মারা গেছে। ’

তবে অস্ত্রোপচারে নিয়োজিত চিকিৎসক ডা. আল মামুনের দাবি, উচ্চ রক্তচাপের কারণে অস্ত্রোপচারের আগেই রোগী মারা যান।



সাতদিনের সেরা