kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

ধর্ষণের মামলা তুলে নিতে বাদীকে হত্যার হুমকি

মণিরামপুরে বহিষ্কৃত শিক্ষক র‌্যাবের হাতে আটক

গাইবান্ধা ও মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি   

২২ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গাইবান্ধার ফুলছড়িতে ধর্ষণ মামলা তুলে নিতে বাদীকে হত্যার হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক এসআইয়ের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ওই নারী গতকাল শনিবার গাইবান্ধা প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী ওই নারী অভিযোগ করেন, তাঁর বিধবা মা ২০২১ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর জমিজমা নিয়ে ফুলছড়ি থানায় আটজনকে আসামি করে একটি মামলা করেন। পরে ২৪ অক্টোবর রাতে মামলার তদন্ত করতে আসেন ফুলছড়ি থানার এসআই শামসুল হক।

বিজ্ঞাপন

এ সময় উল্টো মিথ্যা মামলায় জড়ানোর ভয় দেখিয়ে ভুক্তভোগী ওই তরুণীকে ধর্ষণ করেন শামসুল হক। পরদিন ভুক্তভোগী ওই তরুণী থানায় গিয়ে ওসিকে ঘটনাটি অবগত করেন। এ ঘটনার পর ১১ ডিসেম্বর এসআই শামসুল হক তাঁকে বালাসীঘাটে ডাকেন। সেখানে তাঁর খালার বাড়িতে আবারও তাঁকে ধর্ষণ করা হয়। এতে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি ওষুধ প্রয়োগে তাঁর গর্ভের আড়াই মাসের বাচ্চা নষ্ট করেন এসআই শামসুল।

এদিকে যশোরের মণিরামপুরে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি করার অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অভিযুক্ত শিক্ষক প্রদীপ বাইনকে এক মাসের জন্য সাময়িক বহিষ্কার করে। অভিযুক্ত শিক্ষক প্রদীপ বাইন উপজেলার ঢাকুরিয়া প্রতাপকাটী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের গণিতের শিক্ষক। তিনি উপজেলার শ্রীপুর গ্রামের সন্তোষ বাইনের ছেলে। গতকাল দুপুরে যশোর র‌্যাব-৬-এর সদস্যরা ঢাকুরিয়া প্রতাপকাটী বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আসেন। পরে তাঁরা অভিযুক্ত শিক্ষক প্রদীপ বাইনকে আটক করেন। বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক রমজান আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।



সাতদিনের সেরা