kalerkantho

বুধবার । ২৯ জুন ২০২২ । ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৮ জিলকদ ১৪৪৩

চোর সন্দেহে দুই ভাইকে গাছে বেঁধে নির্যাতন

আলাদা স্থানে দুই ভাইকে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল

চাঁদপুর, নড়াইল ও লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি   

১৭ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নড়াইলের লোহাগড়া ও চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে দুই ভাইকে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে ছাগল চোর সন্দেহে দুই ভাইকে গাছে বেঁধে নির্যাতন ও বিড়ির আগুনের ছেঁকা দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্যাতনের ভিডিও এরই মধ্যে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

নড়াইলের লোহাগড়ার ঘটনাটি রবিবার সকাল ৮টার দিকে কোটাকোল ইউনিয়নের মাটিয়াডাঙ্গা গ্রামে ঘটে।

বিজ্ঞাপন

নির্যাতিতরা হলেন মাটিয়াডাঙ্গা গ্রামের রশিদ শেখের ছেলে ফরিদ শেখ (৩০) ও রউফ শেখের ছেলে তরিক শেখ (২৩)। তাঁরা পরস্পর চাচাতো ভাই। বর্তমানে তাঁরা লোহাগড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

শনিবার রাতে মাটিয়াডাঙ্গা গ্রামের হাই মুন্সির একটি ছাগল হারিয়ে যায়। ওই ছাগল চুরির অভিযোগে ফরিদ ও তরিককে ধরে আনা হয়। পরে দুজনকে আলাদাভাবে দড়ি দিয়ে গাছের সঙ্গে পিঠমোড়া করে বেঁধে চালানো হয় নির্যাতন। নির্যাতন চলাকালে অভিযোগকারীর বাড়ি থেকে খবর আসে ছাগল বাড়ি ফিরে এসেছে। এরপর তাঁদের ছাড়া হয়।

কোটাকোল ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবু কালাম মুন্সি মারধরের কথা স্বীকার করে বলেন, ‘আমি ঘটনাস্থলে ছিলাম, তবে আমি তাদের মারিনি। ওই ছেলেরা ভালো লোক না। তাদের নামে থানায় চুরির মামলা আছে। সন্দেহ থেকে তাদের মারা হয়েছে। ’

চাঁদপুর : ফরিদগঞ্জ উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে দুই ভাই ফয়েজ মৃর্ধা ও শেখ ফরিদকে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে এই ঘটনা ঘটলেও এর দুই দিন পর রবিবার রাতে নির্যাতনের সেই দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

সোমবার সকালে অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন দেলোয়ার হোসেন (৬৫), লোকমান হোসেন (৬৮) ও মাহবুব আলম সোহেল (৩২)।

নির্যাতনের শিকার দুই ভাই ফয়েজ মৃর্ধা ও শেখ ফরিদ অভিযোগ করেন, নির্যাতনের সময় বাঁচার জন্য আকুতি জানিয়েও নিস্তার পাননি তাঁরা।



সাতদিনের সেরা