kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

হবিগঞ্জের মাধবপুর

খাল ভরাট করায় জলাবদ্ধতা

♦ এক দিনের বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে পাকা ধান, সবজি, রাস্তাঘাট
♦ গত ১৬ মার্চ জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ দেওয়া হয়

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১৬ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



খাল ভরাট করায় জলাবদ্ধতা

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় খাল ভরাট করে স্থাপনা তৈরি করেছে বাংলাদেশ হার্ডল্যান্ড সিরামিকস ফ্যাক্টরি। এতে ওই এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। গতকাল তোলা। ছবি : কালের কণ্ঠ

হবিগঞ্জের মাধপুর উপজেলায় এক দিনের বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে পাকা ধান, সবজির ক্ষেত ও রাস্তাঘাট। বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের পথ না পেয়ে ভেঙেছে সড়ক। স্থানীয়রা জানায়, খাল-ছড়া ভরাট করে একের পর এক কারখানা তৈরি করায় এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত শুক্রবার বিকেলে মুষলধারে বৃষ্টি হওয়ায় তলিয়ে গেছে হাজার হাজার জমির পাকা ধান।

বিজ্ঞাপন

নষ্ট হয়ে গেছে বেগুন, বরবটি, শসার মতো সবজি। অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যাওয়াটা স্থানীয়দের নজর কেড়েছে। এর কারণ হিসেবে তাঁরা চিহ্নিত করেছেন, শত বছরের পানি নিষ্কাশনের খাল, ছড়া ও নালাগুলো বন্ধ করে দেওয়াকে।

আন্দিউড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য সাদেক মিয়া জানান, ফসলি জমির ওপর একটি শিল্প গ্রুপ কারখানা বানাচ্ছে। এ কারণে পাশের সেতুর নিচ দিয়ে পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। এতে বাকসাইর, হাড়িয়া ও দুর্গাপুর গ্রামের জনগণের ফসলি জমি পানির নিচে তলিয়ে গেছে। এ ছাড়া বেজুড়া গ্রামের ফসলি জমিতে গড়ে উঠেছে যমুনা ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক। এতে পূর্ব আন্দিউড়া, নাজিরপুর ও তেলানিয়া গ্রামের পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। এই তিন গ্রামের শত শত একর ফসলি জমি ও মৎস্যজীবীদের মাছ ভেসে গেছে। তিনি বলেন, ‘কম্পানিগুলো পানি নিষ্কাশনের খাল দখল করে নেওয়ায় এক দিনের বৃষ্টিতে এলাকার ফসলি জমি, রাস্তাঘাট, পুকুরের পার তলিয়ে গিয়ে মাছ ভেসে গেছে।

গত ১৬ মার্চ জেলা প্রশাসক বরাবর শ্যামপুর গ্রামবাসীর একটি লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, হার্ডল্যান্ড সিরামিকস ফ্যাক্টরির সীমানাপ্রাচীর নির্মাণ করে জগদীশপুর, বড়ধলিয়া, তেমুনিয়া, শিংপুর, গোলাইয়া ও রসুলপুর গ্রামগুলোর পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধ করে দিয়েছে। এর আগে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের একটি সেতুর নিচ দিয়ে পানি নিষ্কাশন হতো। সেই নিষ্কাশন পথও বন্ধ করে রেখেছে ওই ফ্যাক্টরি। গ্রামগুলোর পানি সিরামিকস ফ্যাক্টরির দেয়ালে আটকা পড়ে পাশের তেমুনিয়া-শ্যামপুর সড়ক ভেঙে বেজুড়া গ্রামের ফসলি জমিতে জমা হচ্ছে। ডজনখানেক গ্রামের শত বছরের পানি নিষ্কাশনের পথ বন্ধকারী বাংলাদেশ হার্ডল্যান্ড সিরামিকস ফ্যাক্টরির বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে তাঁরা দাবি জানান। পরবর্তী সময়ে আবেদনটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পাঠান জেলা প্রশাসক।

এ বিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আবু আসাদ ফরিদুল হক জানান, নিচু পারের কিছু পুকুর থেকে মাছ বেরিয়ে গেছে। আগের মতো বৃষ্টির পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা থাকলে এ ধরনের ক্ষতি হতো না।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আল মামুন হাসান দাবি করেন, ‘৯০ শতাংশ ধান কাটা হয়ে গেছে, আউশের বীজতলাসহ বিভিন্ন প্রজাতির সবজির ক্ষতি হয়েছে। ’

জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান বলেন, ‘খাল-নালা ও ছড়া দখলের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’



সাতদিনের সেরা