kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ মাঘ ১৪২৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২২। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

বগুড়ায় মুক্তিপণ না পেয়ে শিশুকে হত্যা

হবিগঞ্জে চাচির হাতে খুন আড়াই মাসের শিশু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ না পেয়ে বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে রাজ মামুন নামের ৯ বছর বয়সী এক শিশুকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ ফরিদুল ইসলাম নামের এক সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ফরিদুল হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। গতকাল বুধবার দুপুরে বগুড়া জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

অন্যদিকে হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার আমিরখানী মহল্লায় হোসাইন নামের আড়াই মাস বয়সী এক শিশুকে হত্যা করেছে তার চাচি শাহেনা বেগম। শাহেনা আদালতে ১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দিতে এ কথা স্বীকার করেছেন। শিশুটির মা শাহেনাকে বেশি মেয়েসন্তান জন্মদানের খোটা দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি এই কাজ করেন।

বগুড়া থেকে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক জানান, পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার সারিয়াকান্দির জামথল গ্রাম থেকে অটোরিকশায় করে মামুনকে অপহরণ করেন ফরিদুল। এরপর তার বাবার মোবাইল ফোনে অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন করে ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন তিনি। মুক্তিপণের টাকা না পেলে মামুনকে হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেন। দাবি করা টাকা না পেয়ে ওই রাতেই মামুনকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করেন ফরিদুল।

গত মঙ্গলবার রাতে মামুনের লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে ঢাকার সাভার থেকে গতকাল ভোররাতে ফরিদুলকে গ্রেপ্তার করা হয়। ফরিদুলের গ্রামের বাড়ি রংপুরের পীরগাছা উপজেলায়। তিনি ধান কাটার শ্রমিক। 

বগুড়া জেলা পুলিশ সুপার সুদীপ চক্রবর্ত্তী জানান, প্রাথমিকভাবে ফরিদুল স্বীকার করেছেন যে তিনি ঋণ থেকে উঠে দাঁড়ানোর জন্য মুক্তিপণের আশায় মামুনকে অপহরণ করেছিলেন।

আমাদের হবিগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, বানিয়াচং থানার ওসি এমরান হোসেন জানিয়েছেন, আমিরখানী মহল্লার শাহেনার তিন মেয়ে ও এক ছেলে। তাঁর জা রুখসানা বেগমের তিন ছেলে। রুখসানা প্রায়ই শাহেনাকে বেশি মেয়েসন্তান জন্ম দেওয়ায় খোটা দিতেন। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে মনোমালিন্যের সৃষ্টি হয়। মঙ্গলবার বিকেলে রুখসানার আড়াই মাসের সন্তান হোসাইনকে গলায় আঙুল ঢুকিয়ে হত্যা করেন শাহেনা।



সাতদিনের সেরা