kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ মাঘ ১৪২৮। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ছাত্রদের ওপর স্থানীয়দের হামলা, আহত ৫

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা   

৯ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মেসে উচ্চ স্বরে কথা বলায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ছাত্রদের ওপর স্থানীয়রা হামলা করেছে। গত মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে ক্যাম্পাসের পাশের আনন্দনগরের একটি মেসে এই ঘটনা ঘটে।

ছাত্রদের অভিযোগ, মেসের এক সিনিয়রের বিদায় উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনায় উচ্চ আওয়াজ নিয়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে অভিযোগ করতে আসেন পাশের বাড়ির মালিক জাহিদুল ইসলাম। তিনি ইবির আল কোরআন অ্যান্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের শাখা কর্মকর্তাও।

বিজ্ঞাপন

তাঁর সঙ্গে ছাত্রদের কথা-কাটাকাটি হয়। এর পর তিনি স্থানীয়দের নিয়ে মেসে ঢুকে ছাত্রদের এলোপাতাড়ি মারধর করেন। মারধরের পর হামলাকারীরা ছাত্রদের আটক রাখেন। পরে অন্য সহপাঠীরা গিয়ে তাঁদের উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে নিয়ে যান। সেখানে গুরুতর আহত একজন চিকিৎসাধীন। অন্য চারজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমি মেসে অভিযোগ করতে গিয়েছিলাম। ছাত্ররা আমাকে হেয় করেছে। পরে স্থানীয়রা হামলা করেছে কি না, এটা আমি জানি না। ’

এ ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার দাবিতে মধ্যরাতেই ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন শতাধিক শিক্ষার্থী। পরে সাবেক উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন এসে শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করলে তাঁরা অবস্থান তুলে নেন। পরে গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনায় বসে প্রক্টরিয়াল বডি। পরে তাঁরা উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করে জড়িত কর্মকর্তার স্থায়ী বরখাস্ত ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতসহ বিভিন্ন দাবি জানান ও লিখিত অভিযোগ জমা দেন।

এ সময় উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, ‘এটি মোটেই কোনো স্বাভাবিক ঘটনা নয়। একজন কর্মকর্তা কর্তৃক এরকম ঘটনা আমাদের অবাক করেছে। আমরা বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্বসহকারে দেখব। স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তা নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেব। ’



সাতদিনের সেরা