kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ মাঘ ১৪২৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২২। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

পটুয়াখালীতে বিএনপি কার্যালয় ভাঙচুর

ঘটনার জন্য ছাত্রলীগকে দায়ী করা হয়। তবে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে

পটুয়াখালী প্রতিনিধি   

৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পটুয়াখালী বিএনপি কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার জন্য বিএনপি ছাত্রলীগকে দায়ী করেছে। ছাত্রলীগ অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে গতকাল শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় শহরের বনানী রোডের বিএনপি কার্যালয়ের সামনে ছাত্রদল বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের আগেই একদল সন্ত্রাসী বিএনপি কার্যালয়ের তালা ভেঙে হামলা চালায় ও আসবাব ভাঙচুর করে।

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শফিউল বাশার উজ্জ্বল এ বিষয়ে বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে আমাদের কর্মসূচি ছিল। এ সময় ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা সেখানে কয়েক দফায় হামলা চালায় এবং কার্যালয়ের তালা ভেঙে ভেতরের আসবাব ভাঙচুর করে। আমরা সেখানে উপস্থিত পুলিশের সহযোগিতা চেয়েও পাইনি। উল্টো পুলিশ আমাদের কর্মসূচিতে বাধা ও লাঠিপেটা করে।’

অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক ভূঁইয়া বলেন, ‘শহরবাসী সবাই জানে পটুয়াখালীতে বিএনপির দৃশ্যমান দুটি গ্রুপ। তাদের নিজেদের মধ্যকার সহিংসতা এখন ছাত্রলীগের ওপর চাপিয়ে দিচ্ছে। এ ঘটনার সঙ্গে ছাত্রলীগের কোনো নেতাকর্মীর সম্পৃক্ততা নেই। এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিরোধে ঘটেছে।’

সদর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘আমাদের কাছে ওই হামলার ব্যাপারে কেউ অভিযোগ করেনি। পুলিশ তাদের সহযোগিতা করেনি বলে যে অভিযোগ করা হয়েছে, তা মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।’



সাতদিনের সেরা