kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ মাঘ ১৪২৮। ১৮ জানুয়ারি ২০২২। ১৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

প্রকৃতি দর্শন ও বিমূর্ত চিত্র

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি   

৫ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



প্রকৃতি দর্শন ও বিমূর্ত চিত্র

সুরমা নদীর তীর সেজেছে নতুন রূপে। টাইলসে মোড়ানো পথে হাঁটার পাশাপাশি চেয়ারে বসে সূর্যাস্ত দেখার সুযোগ। প্রাচীর যেন হয়ে উঠেছে ছবির মতো। সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের সীমানা দেয়াল লাগোয়া সুরমা নদীর পশ্চিম তীরে দেখা গেল এই চিত্র। ছবি : কালের কণ্ঠ

সুরমা নদীর তীর সেজেছে নতুন রূপে। টাইলসে মোড়ানো পথে হাঁটার পাশাপাশি চেয়ারে বসে সূর্যাস্ত দেখার সুযোগ। দেয়ালও যেন হয়ে উঠেছে ছবির মতো। সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের সীমানা দেয়াল লাগোয়া সুরমা নদীর পশ্চিম তীরে দেখা গেল এই চিত্র।

সদর উপজেলা পরিষদ এই আকর্ষণীয় পার্ক তৈরি করেছে, যেখানে বসে সপরিবারে আনন্দভ্রমণ করা যাবে। দেখা যাবে নদী আর প্রকৃতি। দেয়ালে বিমূর্ত ছবি এঁকে দিয়েছেন তরুণ শিল্পী সত্যজিৎ চক্রবর্তী রাজন। মূলত এই পার্কে বসে যা দৃষ্টিসীমার বাইরে থেকে যাবে, সেই অংশই দেয়ালে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে এই চিত্রকর্মে।

শিল্পী সত্যজিত চক্রবর্তী রাজন বলেন, ‘তিনটি দেয়ালে প্রায় ৩০০ ফুট দৈর্ঘের অ্যাবস্ট্রাক্ট ছবি আঁকা হয়েছে।’

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খায়রুল হুদা চপল বলেন, “মুজিববর্ষকে স্মরণীয় করে রাখতে আমরা ‘মুজিব ১০০ পার্ক’ নির্মাণ করেছি। শিল্পী চারপাশের অদেখা প্রকৃতির বিমূর্ত প্রকাশ করেছেন দেয়ালে। আগামী দিনে এই দৃষ্টিনন্দন পার্ক আরো বড় করার পরিকল্পনা রয়েছে। ব্যস্ত নাগরিকরা ছুটির দিনে এই পার্কে সপরিবারে আনন্দ চিত্তে সময় কাটাতে পারবে।”



সাতদিনের সেরা