kalerkantho

শুক্রবার ।  ২৭ মে ২০২২ । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৫ শাওয়াল ১৪৪

হারানোর ১১ বছর পর মায়ের বুকে মরিয়ম

ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



হারানোর ১১ বছর পর মায়ের বুকে মরিয়ম

ফুলবাড়িয়ায় নিজ বাড়িতে মায়ের সঙ্গে মরিয়ম। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর মিরপুরের জাতীয় চিড়িয়াখানায় হারিয়ে যাওয়ার ১১ বছর পর মায়ের বুকে ফিরেছেন মরিয়ম। ‘আপন ঠিকানা’ নামের একটি অনুষ্ঠানে দেওয়া তাঁর সাক্ষাৎকারটি ফেসবুকে ভাইরাল হলে গত রবিবার মরিয়মের সন্ধান পায় পরিবারের সদস্যরা। মরিয়ম ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের কান্দানিয়া গ্রামের মৃত আমছর আলী ও মোছা. বেগম দম্পতির মেয়ে। সাত বছর বয়সে হারিয়ে যাওয়া এ মেয়েটি এখন ১৮ বছরের তরুণী।

বিজ্ঞাপন

মেয়েকে ফিরে পেয়ে কান্দানিয়া গ্রামজুড়ে বইছে আনন্দের বন্যা।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, ২০১০ সালে রাজধানীর মিরপুরের জাতীয় চিড়িয়াখানায় ঘুরতে যায় মরিয়মের পরিবারের সদস্যরা। তখন মরিয়মের বয়স মাত্র সাত বছর। বাঘ-ভাল্লুক দেখতে দেখতে একসময় সে পরিবার থেকে আলাদা হয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও তাকে পাওয়া যায়নি। হারানোর পর কয়েকবার হাত বদল হয়ে মরিয়ম সবশেষ আশ্রয় পায় সরকারি চাকরিজীবী মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ ও রাবেয়া আহমেদ দম্পতির বাসায়। দুই ছেলেমেয়ে আর মরিয়মকে নিয়ে তাঁরা থাকতেন রাজধানীর মধ্য বাড্ডা এলাকায়। দীর্ঘ ১১ বছর নিজের মেয়ের মতোই আদর-যত্নে মরিয়মকে বড় করেছেন তাঁরা।

মরিয়মের মা মোছা. বেগম বলেন, ‘কখনো ভাবিনি যে আবার মেয়েকে ফিরে পাব। কী যে ভালো লাগছে—তা বলে বোঝাতে পারব না। ’ আশ্রয়দাতা মোসলেম উদ্দিন আহামেদ বলেন, ‘মরিয়মকে আমরা আমাদের মেয়ের মতো করেই আদর-যত্নে বড় করেছি। সে তার পরিবার ফিরে পাওয়ায় আমরা খুবই আনন্দিত। ’

ভবানীপুর ইউপি চেয়ারম্যান শাহিনুর মল্লিক জীবন বলেন, ‘১১ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া শিশুটি তার পরিবারের কাছে ফিরেছে—সত্যিই এটি আনন্দের খবর। ’



সাতদিনের সেরা