kalerkantho

শুক্রবার ।  ২৭ মে ২০২২ । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৫ শাওয়াল ১৪৪

কুষ্টিয়ার অস্তিত্বহীন সেই ৪৭ চালকলের বরাদ্দ বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

২ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ৪৭টি ভুয়া চালকলের নাম অবশেষে জেলা খাদ্য কর্মকর্তার কার্যালয়ের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হলো। সেই সঙ্গে আসন্ন আমন সংগ্রহে তাদের বিপরীতে যে বরাদ্দ ছিল, তা-ও বাতিল করা হয়েছে।

ওই ভুয়া চালকলগুলোর নাম তালিকায় তুলে কয়েক বছর ধরে সরকারের কাছে চাল বিক্রি করে একটি মহল অবৈধ সুবিধা নিচ্ছিল। গত বোরো মৌসুমেও এসব চালকলের বিপরীতে তিন হাজার ৪০০ টন চাল কেনার হিসাব দেখানো হয়।

বিজ্ঞাপন

এ নিয়ে কালের কণ্ঠে গত ২২ অক্টোবর ‘অস্তিত্বহীন চালকল থেকে সাড়ে তিন হাজার টন চাল সংগ্রহ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর নড়েচড়ে বসে উপজেলা খাদ্য দপ্তর।

জেলা খাদ্য কর্মকর্তার কার্যালয়ের একটি সূত্র এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, কালের কণ্ঠে খবর প্রকাশের পর উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক তদন্ত করেন। তিনি ওই সব মিলের কোনো অস্তিত্ব না পাওয়ায় জেলা খাদ্য কর্মকর্তাকে লিখিতভাবে জানান। এর ভিত্তিতে ভুয়া ৪৭ চালকলের নাম তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। আসন্ন আমন সংগ্রহের সময় তারা যেন কোনো বরাদ্দ না পায় সে জন্য খাদ্য অধিদপ্তরে সুপারিশ করা হয়েছে বলে ওই সূত্র জানায়।

দৌলতপুর উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা মোফাখারুল ইসলাম জানান, ‘তদন্তে দেখা গেছে, এখানে কোনো মিলেরই চুক্তিযোগ্য কোনো অবকাঠামো নেই। এরপর গুদাম কর্মকর্তা ইকবাল হোসেনকে বললে তিনিও আমাকে জানান, গত বোরো মৌসুমে যে ৪৭টি মিলের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল এবং চাল সরবরাহ করেছে তাদের কোনোটিরই চাল উৎপাদনের কোনো অবকাঠামো নেই। ’

জেলা খাদ্য কর্মকর্তা তাহসিনুল হক বলেন, ‘অস্তিত্বহীন মিলের নাম তালিকা থেকে বাদ দিয়েছি। ’



সাতদিনের সেরা