kalerkantho

শুক্রবার ।  ২৭ মে ২০২২ । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৫ শাওয়াল ১৪৪

তিন বিষয়ের পরীক্ষায়ও পূর্ণ ফি, অসন্তোষ

পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি   

২ নভেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হবে এসএসসি পরীক্ষা। এর আগের বছরগুলোতে সব বিষয়ে পরীক্ষা হলেও করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার গ্রুপভিত্তিক (বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য) শুধু তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু রংপুরে বিভিন্ন পরীক্ষাকেন্দ্রের সচিবরা আগের মতো সব বিষয়ে নির্ধারিত ফি আদায় করছেন। ফলে অভিভাবক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

এবার রংপুর জেলায় ৫০টি কেন্দ্রে ৩৭ হাজার ১১১ জন শিক্ষার্থীর পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার কথা।

একাধিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকরা জানান, আগে সব বিষয়ের জন্য জনপ্রতি ৪৩৫ থেকে ৪৬০ টাকা কেন্দ্র ফি দিতে হতো। কিন্তু এবারের পরিস্থিতি ভিন্ন। এবার মাত্র তিন বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হচ্ছে। পরীক্ষার সময়ও অর্ধেক করা হয়েছে। ফলে পরীক্ষার খরচও কমে যাওয়ার কথা। কিন্তু প্রতিটি পরীক্ষাকেন্দ্রের সচিবরা আগের নির্ধারিত ফি আদায় করে নিচ্ছেন। এতে বিপুল পরিমাণ অর্থ তছরুপের আশঙ্কা করছেন তাঁরা।

রংপুরের পীরগাছা উপজেলার কান্দিরহাট স্কুল অ্যান্ড কলেজের এক পরীক্ষার্থীর অভিভাবক রাশেদুল ইসলাম বলেন, ‘বিষয় অনুপাতে কেন্দ্র ফি কয়েক গুণ বেশি নেওয়া হচ্ছে। ’ কান্দিরহাট স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ এ বি এম মিজানুর রহমান বলেন, ‘কর্তৃপক্ষের কোনো দিকনির্দেশনা না থাকায় পূর্বনির্ধারিত হারে কেন্দ্র ফি জমা দিতে বাধ্য হচ্ছি। ’

পীরগাছা উপজেলার বড়দরগাহ উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের সচিব খোকন মিয়া বলেন, ‘এখন পর্যন্ত কেন্দ্র ফি নিয়ে কোনো পরিপত্র জারি করা হয়নি। তাই পূর্বনির্ধারিত ফি-ই নেওয়া হচ্ছে। ’ দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার বিষয়ে নতুন কোনো সিদ্ধান্ত হলে তা পরবর্তী সময়ে জানিয়ে দেওয়া হবে। ’

খুলনা কমার্স কলেজে বাড়তি অর্থ আদায়ের অভিযোগ

এদিকে খুলনা অফিস জানায়, খুলনার আযম খান সরকারি কমার্স কলেজে চূড়ান্ত বর্ষের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ফরম পূরণকালে বাড়তি ৪০০ টাকা করে আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষা সমাপনী অনুষ্ঠান আয়োজনের নাম করে ছাত্রলীগের নেতারা এই অর্থ আদায় করছেন। কিন্তু কলেজ কর্তৃপক্ষ এই অর্থ আদায়ে রাজি না হওয়ায় গতকাল সোমবার শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণে বাধা দেওয়ার ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।



সাতদিনের সেরা