kalerkantho

বুধবার । ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৮ ডিসেম্বর ২০২১। ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

পুলিশ ও যুবলীগের বাধার মুখে যুবদল

সিরাজগঞ্জে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ১০, জামালপুরে ককটেল হামলা

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২৮ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



পুলিশ ও যুবলীগের বাধার মুখে যুবদল

সিরাজগঞ্জ শহরে গতকাল যুবদলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ। ছবি : কালের কণ্ঠ

যুবদলের ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশ ও মিছিলে গতকাল বুধবার বাধার খবর পাওয়া গেছে। কোথাও পুলিশ, আবার কোথাও যুবলীগের  বাধার অভিযোগ উঠেছে। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

সিরাজগঞ্জ : শহরে পুলিশ ও আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে যুবদল নেতাকর্মীদের সংঘর্ষে অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। দুপুরে শহরের ইবি রোডে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে এ সংঘর্ষ ঘটে। আহতদের মধ্যে সদর থানার উপপরিদর্শক সাইফুল ইসলাম, কনস্টেবল বজলুল, জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু, দপ্তর সম্পাদক আবু মুছা, সদস্য মিলন, পৌর যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল ও পৌর যুবদল নেতা আব্দুল মতিনের নাম পাওয়া গেছে। এঁদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ আব্দুল মতিনকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাড়ে ১১টায় বিএনপি কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ শুরু হয়। পুলিশ বাধা দিলে যুবদল নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। একপর্যায়ে উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ, ধাওয়াধাওয়ি ও ইট-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

জেলা যুবদলের সভাপতি মির্জা আব্দুল জব্বার বাবু বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ সমাবেশে পুলিশ হামলা চালিয়েছে। নেতাকর্মীদের লাঠিপেটা ও গুলি করা হয়েছে। অন্তত ১০ জন গুলিবিদ্ধসহ অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।’

সদর থানার পরিদর্শক নজরুল ইসলাম বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনের আশ্বাস দিয়েছিল তারা, কিন্তু রাস্তা বন্ধ করে সমাবেশ করতে থাকে। বিষয়টি বলতে গেলে নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে পুলিশের ওপর ইট-পাটকেল ছোড়ে। একপর্যায়ে দুজন পুলিশ আহত হন। পরে টিয়ারশেল ছুড়ে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রণ করা হয়। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

জামালপুর : যুবলীগের কর্মীদের হামলায় যুবদলের সমাবেশ পণ্ড হয়ে গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শহরের স্টেশন বাজারে জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে সদর উপজেলা যুবদলের উদ্যোগে সমাবেশ হচ্ছিল। দুপুর ১২টার দিকে জেলা যুবলীগের একদল নেতাকর্মী লাঠিসোঁটাসহ মিছিল নিয়ে হঠাৎ সমাবেশে হামলা চালায়। এতে যুবদলের সমাবেশ পণ্ড হয়ে যায়। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়াধাওয়ি দমাতে পুলিশ লাঠিপেটা করে। হামলাকারীরা বিএনপি কার্যালয়ের সাইনবোর্ড, সমাবেশের দুটি মাইক ও কয়েকটি চেয়ার ভাঙচুর করে। পরে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন হলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

সমাবেশের প্রধান অতিথি ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন অভিযোগ করে বলেন, ‘সমাবেশ শান্তিপূর্ণভাবে হচ্ছিল। শেষের দিকে আমি বক্তব্য রাখার সময় জেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এরশাদ হোসেন সোহেলের নেতৃত্বে যুবলীগের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে এসে পুলিশের উপস্থিতিতে হঠাৎ সমাবেশে হামলা করে। পাঁচটি ককটেল ছোড়ে। হামলার পর পুলিশ আমাদের চার-পাঁচজন নেতাকর্মীকে আটক করে নিয়ে গেছে।’

এ বিষয়ে যুবলীগের নেতাকর্মীদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে জামালপুর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন বলেন, ‘কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে যুবলীগের নেতাকর্মীরা বিএনপি কার্যালয়ের সামনে দিয়ে মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় বিএনপি ও যুবদলের নেতাকর্মীরা বাধা দিলে সেখানে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়াধাওয়ির ঘটেছে বলে শুনেছি।’

নীলফামারী : শহরের পৌর মার্কেটসংলগ্ন দলীয় কার্যালয় থেকে সকাল ১১টার দিকে একটি শোভাযাত্রা প্রধান সড়কে ওঠার সময় পুলিশ বাধা দেয়। বাধার মুখে শোভাযাত্রা করতে না পেরে দলীয় কার্যালয়ে আলোচনাসভা করেন নেতারা। এ সময় জেলা যুবদলের সভাপতি এ এইচ এম সাইফুল্লাহ রুবেলের সভাপতিত্বে বক্তৃতা দেন জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা রঞ্জু, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী, সহসভাপতি আব্দুস সালাম বাবলা, সদর উপজেলার আহ্বায়ক শামীম শাহ্ আলম তনু, পৌর শাখার আহ্বায়ক হাসানুজ্জামান সরকার তৌহিদ প্রমুখ। আব্দুস সালাম বাবলা বলেন, ‘পুলিশের বাধার মুখে শোভাযাত্রা করা সম্ভব না হওয়ায় সংক্ষিপ্ত কর্মসূচিতে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করা হয়েছে।’

গাইবান্ধা : জেলা বিএনপির কার্যালয় থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়ে কিছুদূর যাওয়ার পর পুলিশ বাধা দেয়। এর আগে আলোচনাসভা ও দোয়া মাহফিলে জেলা যুবদলের সভাপতি রাগীব হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার জাহেদুন্নবী তিমুর সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন জেলা বিএনপির সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সরকার, শহর বিএনপির সভাপতি শহিদুজ্জামান শহীদ, সদর থানা বিএনপির আহ্বায়ক খন্দকার ওমর ফারুক সেলু, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মঞ্জুর মোর্শেদ বাবু, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক ভুট্টু, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক শাহজালাল সরকার খোকন প্রমুখ।

রাজশাহী : নগরীর মালোপাড়ার মহানগর বিএনপি কার্যালয়ের সামনে বিকেলে সমাবেশ করছিল মহানগর যুবদল। তখন একটি মিছিল ওই সমাবেশের দিকে যাচ্ছিল। পুলিশ সেই মিছিলে বাধা দেয়। পুলিশের পক্ষ থেকে যুবদল নেতাকর্মীদের মিছিল ছাড়া সমাবেশে যেতে অনুরোধ করা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে যুবদল নেতাকর্মীরা পুলিশের ওপর ইটপাটকেল ছোড়েন। পরে পুলিশ ধাওয়া দিলে তাঁরা ছত্রভঙ্গ হয়ে যান।



সাতদিনের সেরা