kalerkantho

সোমবার । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৯ নভেম্বর ২০২১। ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

আ. লীগের বিদ্রোহী তিনগুণ

ভুবন রায় নিখিল, নীলফামারী   

২০ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আ. লীগের বিদ্রোহী তিনগুণ

নীলফামারী সদর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনে (১১ নভেম্বর) চেয়ারম্যান পদে মোট প্রার্থী ৬৮ জন। এর মধ্যে ৩২ জনই আওয়ামী লীগের নেতা। বাকিদের মধ্যে বিএনপির আটজন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের পাঁচজন, ওয়ার্কার্স পার্টির একজন ও জামায়াতের একজন প্রার্থী রয়েছেন। এ বিষয়ে সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আখতারুজ্জামান জুয়েল বলেন, ‘দল নির্বাচনে যেহেতু অংশ নিচ্ছে না, এ কারণে তেমন প্রার্থী নেই।’

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) জেলা সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল আলম প্রধান বলেন, ‘দেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন না হওয়ার আশঙ্কায় অন্য দল ও সাধারণ মানুষ এগিয়ে আসছে না।’

আওয়ামী লীগে বিদ্রোহীর ছড়াছড়ি স্থানীয় সূত্র জানায়, পলাশবাড়ী ও সংগলশী ছাড়া বাকিগুলোতে আওয়ামী লীগ নেতারা বিদ্রোহ করেছেন।

আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, চওড়াবড়গাছায় নৌকা পেয়েছেন ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য প্রদীপ কুমার রায়। । এখানে বিদ্রোহী প্রার্থী চারজন।

গোড়গ্রামে নৌকা পেয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব জজ। বিদ্রোহী প্রার্থী দুজন।

রামনগরে নৌকা পেয়েছেন চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান। বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ওবায়দুর রহমান।

কচুকাটায় নৌকা পেয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তছলিম উদ্দিন। এখানে বিদ্রোহী প্রার্থী একজন।

পঞ্চপুকুরে নৌকা পেয়েছেন সদ্য আওয়ামী লীগে যোগদানকারী সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান নূরুল আমীন সরকার। বিদ্রোহী প্রার্থী চারজন। সোনারায়ে নৌকা পেয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবদুল মজিদ। বিদ্রোহী প্রার্থী তিনজন।

চড়াইখোলায় নৌকা পেয়েছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহফুজার রহমান। বিদ্রোহী প্রার্থী দুজন। চাপড়াসরমজানীতে নৌকা পেয়েছেন ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুজ্জামান স্বপন। বিদ্রোহী প্রার্থী তিনজন।

লক্ষ্মীচাপে নৌকার প্রার্থী গোলাম মোস্তফা। বিদ্রোহী প্রার্থী একজন।

বিদ্রোহ বিষয়ে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুজার রহমান বলেন, ‘আমরা বিদ্রোহী প্রার্থীদের বসানোর জন্য তাঁদের নিয়ে বৈঠকের প্রক্রিয়া চালাচ্ছি। যাঁরা বসবেন না, তাঁদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রের নির্দেশনা অনুযায়ী সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



সাতদিনের সেরা