kalerkantho

রবিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২৮ নভেম্বর ২০২১। ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

আওয়ামী লীগ-যুবলীগ সংঘর্ষ, আহত ৩৫

শৈলকুপায় মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি   

১৭ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঝিনাইদহের শৈলকুপায় এলাকায় প্রভাব বিস্তার করাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের ৩৫ জন আহত হয়েছেন। এ সময় ভাঙচুর করা হয়েছে অন্তত ২৫টি বাড়ি। গত শুক্রবার রাতে উপজেলার বগুড়া ইউনিয়নের বারুইহুদা গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গত শুক্রবার রাতে বগুড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ও যুবলীগের ঝিনাইদহ জেলা শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম শিমুল সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে নারী-পুরুষসহ উভয় পক্ষের অন্তত ৩৫ জন আহত হন। আহতদের রাতেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা মারাত্মক বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বলেন, এলাকায় প্রভাব বিস্তার করতে শুক্রবার রাতে শিমুল সমর্থিত নাসিরের নেতৃত্বে শতাধিক লোকজন ধারালো অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে বারুইহুদা গ্রামের বিভিন্ন বাড়িতে প্রবেশ করে। এ সময় তারা অন্তত ২৫টি বাড়িঘরে হামলা চালায়। ঘরের ভেতরে থাকা বিভিন্ন আসবাব, টিভি, ফ্রিজ ভাঙচুর করে।

অন্যদিকে যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম শিমুল বলেন, ‘ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের সমর্থক মো. বারিক তাঁর লোকজন নিয়ে বারুইহুদা স্কুল এলাকায় আমার সমর্থকদের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ সময় আমার কয়েকজন সমর্থক আহত হয়।’

শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘এ ঘটনায় ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’



সাতদিনের সেরা