kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

১০ টাকার চালে ৫০০ টাকা ঘুষ

বিশেষ খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি   

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বরগুনার আমতলীতে বিশেষ খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজির চালের নতুন কার্ড পেতে উপকারভোগীদের কাছ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত ঘুষ নেওয়া হচ্ছে। এ নিয়ে প্রতিকার চেয়ে প্রশাসনে অভিযোগ দিয়েছে ভুক্তভোগীরা।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, কলাগাছিয়া গ্রামে ১০ টাকা কেজির চাল বেচার জন্য মো. আবু জাফর মৃধাকে ডিলার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। শুরু থেকে নানাবিধ অনিয়ম করেন ওই ডিলার। ওজনে কম দেওয়া, নানা অজুুহাতে টাকা খেয়ে উপকারভোগীর নাম পরিবর্তন করা এবং গোডাউন থেকে চাল আনার খরচ বাবদ জনপ্রতি ২০ টাকা করে আদায় করেন। সর্বশেষ চাল বিতরণীর সুলভ কার্ড (নতুন বই) করার জন্য উপকারভোগীদের কাছ থেকে নগদ ২০০, ৩০০ ও ৫০০ টাকা পর্যন্ত আদায় করেছেন। যারা এ টাকা দিতে অস্বীকার করে তাদের চাল না দিয়ে বলা হচ্ছে তালিকায় তোমাদের নাম নেই। কেন নেই জানতে চাইলে ডিলার কোনো সদুত্তর দেননি।

উপকারভোগী জাকির, মোর্শেদা, সোহাগ মোল্লা, হালিমা, মামুন ও খাদিজা জানান, তাঁরা আগে চাল পেলেও এখন কার্ড গোপন করায় পাচ্ছেন না। তাঁরা গতকাল বৃহস্পতিবার ডিলার জাফর মৃধার বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

ভুক্তভোগী জাকির বলেন, ‘নতুন বইয়ের কথা বলে ডিলার জাফর মৃধা আমার কাছ থেকে নগদ ৫০০ টাকা নিয়েছেন। এর পরও আমাকে চাল দিচ্ছেন না।’ মোর্শেদা বলেন, ‘আমি নতুন কার্ডের জন্য ডিলারকে ২০০ টাকা দিয়েও চাল পাইনি।’

ডিলার জাফর মৃধা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘আমি কোনো উপকারভোগীর কাছ থেকে সুলভ কার্ড (নতুন বই) করার জন্য টাকা-পয়সা নিইনি।’

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সমীর কুমার রায় বলেন, ‘ডিলারদের মৌখিকভাবে বলেছি ঢাকা থেকে সুলভ কার্ড (নতুন বই) আনার জন্য কিছু খরচ দেওয়ার জন্য। কিন্তু উপকারভোগীদের কাছ থেকে কোনো টাকা-পয়সা নিতে বলিনি।’

গুলিশাখালী ইউপি চেয়ারম্যান এইচ এম মনিরুল ইসলাম মনি বলেন, ‘কলাগাছিয়ার ডিলারের অনিয়নের বিষয়ে একাধিক উপকারভোগী মৌখিকভাবে অভিযোগ জানিয়েছে। সত্যতা প্রমাণিত হলে তাঁর ডিলারশিপ বাতিলের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে সুপারিশ করা হবে।’

আমতলীর ইউএনও (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. কাওসার হোসেন বলেন, ‘অভিযোগ তদন্ত করে সত্যতা পাওয়া গেছে। ওই ডিলারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



সাতদিনের সেরা