kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দুর্গাপুরে সেতুর ওপর হাট, জনদুর্ভোগ

প্রতিকার চেয়ে অভিযোগ করেও কোনো লাভ হয়নি

দুর্গাপুর (রাজশাহী) প্রতিনিধি   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্গাপুরে সেতুর ওপর হাট, জনদুর্ভোগ

রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলা সদরের হোজা নদীর ওপর তৈরি সেতুতে অবৈধভাবে বসানো দোকান। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজশাহীর দুর্গাপুর সদরে সেতুর ওপরে বসছে হাট। সঙ্গে যোগ হয়েছে তিন চাকার যানবাহনের স্ট্যান্ড। ফলে জরুরি সেবার যানবাহনসহ হাজারো পথচারীকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এমন দুর্ভোগের ফলে ঘটছে দুর্ঘটনাও। প্রতিকার চেয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ একাধিক স্থানে অভিযোগ করেও কোনো লাভ হয়নি।

জানা গেছে, দুর্গাপুর উপজেলা সদরের প্রাণকেন্দ্রে হোজা নদীর ওপর অবস্থিত সেতুটি। এটি নির্মাণের পর থেকে যানজট এড়াতে রাখা হয় ট্রাফিক পুলিশ। এরপর এক বছর ধরে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তির ছত্রচ্ছায়ায় ওই সেতুতে বসতে শুরু করে রকমারি পণ্যের হাট। এর সঙ্গে যোগ হয় অটোরিকশার স্ট্যান্ড। এতে চলাচলের পথ সংকুচিত হয়ে গেছে। ফলে সৃষ্টি হচ্ছে চরম জনদুর্ভোগ, ঘটছে দুর্ঘটনা।

রাজশাহী জেলা পরিষদের সদস্য ও দুর্গাপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান ফিরোজ বলেন, ‘সেতুর দুই পাশে বিভিন্ন ধরনের পণ্যের দোকান দেওয়ায় ও ভ্যানগাড়ির স্ট্যান্ড বসায় রাস্তা দিয়ে চলাফেরা করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।’ দুর্গাপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল মোতালেব মোল্লা বলেন, ‘ভ্রাম্যমাণ দোকান বসায় সেতুর ওপর যানজট বাড়ছেই। আমি এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদের সমন্বয় সভা, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা সভা, দুর্গাপুর থানা ও পৌর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। কিন্তু কোনো ফল পাইনি। সম্প্রতি দুর্গাপুর উপজেলায় নতুন ইউএনও যোগদান করার পর আমি তাঁকেও বিষয়টি অবগত করেছি। কিন্তু এর কোনো সুরাহা এখনো চোখে পড়েনি।’

এ বিষয়ে দুর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহেল রানা বলেন, ‘সেতুর ওপর দিয়ে পথচারীদের যাতায়াত ও যানবাহন চলাচলের সুবিধার্থে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’



সাতদিনের সেরা