kalerkantho

সোমবার । ৯ কার্তিক ১৪২৮। ২৫ অক্টোবর ২০২১। ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সাতক্ষীরায় এক দিনে চার লাশ

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাতক্ষীরার আশাশুনির আলাদা স্থানে গতকাল শুক্রবার বিদ্যুত্স্পর্শে তিন যুবকের মৃত্যু হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাঁদের লাশ উদ্ধার করেছে। একই দিন কালীগঞ্জে সবজিক্ষেতে পাওয়া গেছে নারীর লাশ।

মৃতরা হলেন আশাশুনির শোভনালী ইউনিয়নের গোদাড়া গ্রামের মোস্তফা মোল্লার ছেলে রশিদ মোল্লা (২৩), একই এলাকার রসুল পাড়ের ছেলে ইদ্রিস পাড় (২০) ও কাদাকটি গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান (১৮)।

অন্যদিকে কালীগঞ্জে উদ্ধার হওয়া লাশটি হাসিনা বেগমের (৫৫)। তিনি ভাড়া শিমলা ইউনিয়নের খারহাট গ্রামের মৃত নবাব গাজীর স্ত্রী।

পুলিশ ও গ্রামবাসী জানায়, অন্য দিনের মতো গতকাল ভোরেও কাজ করতে ধানক্ষেতে যান রশিদ ও ইদ্রিস। এ সময় ক্ষেতের ওপর দিয়ে যাওয়া বিদ্যুতের তারে তাঁদের হাতের স্পর্শ লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই তাঁদের মৃত্যু হয়। অন্য দিকে হাবিবুর বলেন, ঘরের সিলিং ফ্যান নষ্ট হয়ে যাওয়ায় তাঁর ছেলে মেহেদী নিজেই ফ্যানটি ঠিক করার চেষ্টা করে। এ সময় অসাবধানতাবশত বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়।

আশাশুনি থানার ওসি গোলাম কবির জানান, কবির পাড়ের ধানক্ষেত দিয়ে যাওয়া বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

অন্যদিকে হাসিনার ছেলে আবু হাসান গাজী অভিযোগ করেন, ‘বৃহস্পতিবার রাতের খাবার খেয়ে সবাই ঘুমিয়ে পড়ি। মা বারান্দায় ঘুমিয়ে ছিল। (গতকাল) সকালে বাড়ির পাশে সবজিক্ষেতে মায়ের লাশ উপুড় হয়ে পড়ে থাকতে দেখে প্রতিবেশীদের জানাই।’

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ওসি মো. গোলাম মোস্তফা জানান, মৃত্যুরহস্য উদঘাটনে পুলিশ মাঠে নেমেছে।



সাতদিনের সেরা