kalerkantho

রবিবার । ১১ আশ্বিন ১৪২৮। ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৮ সফর ১৪৪৩

ঘানিতে মা-মেয়ে

ফুলবাড়িয়া (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

১ আগস্ট, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঘানিতে মা-মেয়ে

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার কুশমাইল কড়ইতলা গ্রামের কমলা বেগম মেয়ে কাকলীকে নিয়ে ঘানি টানছেন। ছবি : আব্দুল হালিম

তেলবীজ পিষে তেল বের করা যন্ত্রকে বলা হয় ঘানিকল। সাধারণত ঘানি টানার জন্য কলুরা গরু ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু দরিদ্র কমলা বেগমের (৪৬) গরু কেনার সামর্থ্য নেই। অভাবের সংসারে এক দিন ঘানি না ঘোরালে সংসারের চাকা ঘোরে না। তাই গত ৩২ বছর ধরে কখনো স্বামী, কখনো মেয়ের সঙ্গে ঘানি টেনে চলছেন কমলা বেগম। কাঠের দণ্ডের ওপর প্রায় ৪০০ কেজি ওজন বসিয়ে ঘাড়ে জোয়াল নিয়ে ঘানি টানছেন তাঁরা। ঘানির ঘর্ষণে ফোঁটা ফোঁটা তেল জমে। সেই তেল পাত্রে সংগ্রহ করা হয়। পরে তা বাজারে কিংবা হাটে বিক্রি করতে পারলেই চলে তাঁদের সংসার। ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার কুশমাইল কড়ইতলা গ্রামের তারা মিয়ার স্ত্রী কমলা বেগম। তাঁদের দুই ছেলে ও এক মেয়ে। দুই ছেলে বিয়ে করে আলাদা হয়ে গেছেন। তাঁর মেয়ে কাকলীর বয়স ২২ বছর। কমলা বেগম বলেন, ‘মা-মেয়ে ও স্বামীকে নিয়ে বুকে ডেঙ্গা বাজিয়ে জোয়াল টানি। বয়স হয়েছে, তাই

এখন আর আগের মতো পারি না। দুটি না হলেও অন্তত একটি গরু থাকলেও আমাদের এমন হাড়ভাঙা পরিশ্রম করতে হতো না।’



সাতদিনের সেরা