kalerkantho

শুক্রবার । ২ আশ্বিন ১৪২৮। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১। ৯ সফর ১৪৪৩

হাতুড়ে ডাক্তারের ওষুধে ভ্রূণের মৃত্যু

আগৈলঝাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি   

২৯ জুলাই, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বরিশালের আগৈলঝাড়ায় ভুল চিকিৎসায় গর্ভের সন্তান মারা যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক হাতুড়ে ডাক্তারের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় গুরুতর অসুস্থ অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে গত মঙ্গলবার রাতে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্থানীয় ও রোগীর স্বজনরা জানায়, আগৈলঝাড়া উপজেলার আমবৌলা গ্রামের প্রবাসী গোলাম মওলার স্ত্রী লিয়া বেগম সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। শরীরে হালকা জ্বরের উপশম দেখা দিলে গত শনিবার পয়সারহাটের শহিদ মেডিক্যাল হল ফার্মেসিতে হাতুড়ে ডাক্তার রিপন হালদারের কাছে যান। ওই চিকিৎসকের অ্যান্টিবায়োটিক ইনজেকশন নিয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন লিয়া। পরে গত সোমবার তাঁকে উপজেলার পয়সারহাট আদর্শ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর আলট্রাসনোগ্রাম করানো হয়। আলট্রাসনোগ্রামের প্রতিবেদন দেখে সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক জানান, তাঁর গর্ভের সন্তান মৃত। পরে গৃহবধূর অবস্থা আরো খারাপ হলে মঙ্গলবার তাঁকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে স্বজনরা। এ বিষয়ে অভিযুক্ত পল্লীচিকিৎসক রিপন হালদার বলেন, ‘আমার কারণে ওই গৃহবধূর গর্ভের সন্তান মারা যায়নি।’ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বখতিয়ার আল মামুন বলেন, ‘ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’



সাতদিনের সেরা