kalerkantho

শুক্রবার । ৮ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৩ জুলাই ২০২১। ১২ জিলহজ ১৪৪২

ভিজিডির চাল বিতরণ করছেন না চেয়ারম্যান

পলাশবাড়ী উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তৌফিকুল আমিন টিটুর কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ সুবিধাভোগীরা

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

২০ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তৌফিকুল আমিন টিটু ছয় মাস ধরে ভিজিডির চাল বিতরণ করছেন না। ফলে করোনাকালীন কর্মহীন অসহায় নারীরা চরম দুর্দশার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন।

সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় দুস্থ ও অসহায় নারীদের স্থায়ী উন্নয়নের জন্য খাদ্য সহায়তার পাশাপাশি তাঁদের আত্মনির্ভরশীল করার লক্ষ্যে ভিজিডি কর্মসূচি চালু করা হয়। এই কর্মসূচির আওতায় তাঁদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ দিয়ে আত্মনির্ভরশীল করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কিন্তু এই দুস্থ নারীদের অসহায়ত্বের বিষয়টি জানা সত্ত্বেও ইউপি চেয়ারম্যান করোনার অজুহাত দিয়ে তাঁদের জন্য বরাদ্দ খাদ্যসামগ্রী ছয় মাস ধরে বিতরণ  করছেন না। চেয়ারম্যানের এ ধরনের কর্মকাণ্ডে সুবিধাভোগীদের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

দুস্থ ও অসহায় নারী জোহরা বেগম বলেন, ‘করোনার কারণে সরকারের কঠোর বিধি-নিষেধ থাকায় আমরা কর্মহীন হয়ে পড়েছি। সরকার আমাদের খাদ্য সহায়তার জন্য ভিজিডির চাল বরাদ্দ দিয়েছেন, কিন্তু সেই চাল দুস্থ ও অসহায় নারীদের মাঝে বিতরণ না করে রেখে দিয়েছেন চেয়ারম্যান। এটা অমানবিক। আমরা এখন খাদ্য সংকটে ভুগছি।’ এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুল আমিন টিটু বলেন, ‘খাদ্যগুদাম থেকে ভিজিডির চাল উত্তোলন করা হলেও বিভিন্ন কারণে তা বিতরণ করা হয়নি। খুব শিগগির চাল বিতরণ করা হবে।’

ভিজিডির চাল বিতরণ না করার বিষয়ে পলাশবাড়ী মহিলাবিষয়ক অধিদপ্তরের কর্মকর্তা জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে লিখিতভাবে অবহিত করা হয়েছে। চেয়ারম্যানের কাছ থেকে ভিজিডির চাল ফেরত নিতে তিন সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। চেয়ারম্যান এমন ঘটনা এর আগেও ঘটিয়েছেন। এতে সুবিধাভোগীরা দুর্ভোগের শিকার হয়েছেন।’

পলাশবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. কামরুজ্জামান বলেন, ‘হোসেনপুর ইউনিয়নে গত জানুয়ারি থেকে আজ পর্যন্ত ভিজিডির কোনো চাল বিতরণ করা হয়নি। তবে গুদাম থেকে চাল উত্তোলন করা হয়েছে। চেয়ারম্যানের কাছ থেকে বরাদ্দের ওই ভিজিডির চাল শিগগিরই ফেরত নিয়ে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে বিতরণের ব্যবস্থা করা হবে।’



সাতদিনের সেরা