kalerkantho

সোমবার । ১১ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৬ জুলাই ২০২১। ১৫ জিলহজ ১৪৪২

ফেসবুকে পোস্ট, ক্ষিপ্ত ছাত্রলীগ নেতার পিটুনি

কুলাউড়া (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   

৭ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফেসবুকে পোস্ট, ক্ষিপ্ত ছাত্রলীগ নেতার পিটুনি

শাহাব উদ্দিন

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় ফেসবুকে কলা খাওয়ার ছবি পোস্ট করায় প্রবাসী নাইম আহমদের বাবা চা বিক্রেতা স্বপন মিয়াকে (৫২) মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় গত শনিবার রাতে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাব উদ্দিন সাবেলের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী স্বপন মিয়া। অভিযুক্ত উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাব উদ্দিন সাবেল জায়ফরনগর ইউনিয়নের পূর্ব ভোগতেরা গ্রামের মৃত লাল মিয়ার ছেলে।

এদিকে এ ঘটনায় গতকাল রবিবার দুপুরে জুড়ী উপজেলা প্রেস ক্লাবে নিজেকে নির্দোষ দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করেন ছাত্রলীগ নেতা সাবেল। অন্যদিকে এ ঘটনার ন্যায়বিচার চেয়ে আলাদা সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী স্বপন মিয়ার স্ত্রী মনোয়ারা বেগম। 

জানা যায়, ভুক্তভোগী স্বপন মিয়া উপজেলার কামিনীগঞ্জ বাজারের শিশু পার্কসংলগ্ন এলাকায় চা বিক্রি করেন। তাঁর ছেলে নাইম দুবাইয়ে থাকেন। সেখানে বসে সম্প্রতি ‘কলা খাচ্ছি, আরাম পাচ্ছি’ লিখে কলা খাওয়ার একটি ছবি তাঁর ফেসবুকে পোস্ট করেন। এ ছবি দেখে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সাবেল ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন। সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার কয়েকজন নেতাকর্মী পাঠিয়ে স্বপন মিয়াকে উপজেলার ভবানীগঞ্জ বাজারে অবস্থিত নিউ মার্কেট এলাকায় তুলে নিয়ে যান সাবেল। এ সময় সাবেলসহ তাঁর লোকজন স্বপন মিয়াকে মারধরের পাশাপাশি কানে ধরে উঠবোস করান। এ ঘটনায় পরবর্তী সময়ে স্বপন মিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন ও থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

ভুক্তভোগী স্বপন মিয়া বলেন, ‘একসময় সাবেলের বাবা কলা বিক্রি করতেন। আমার ছেলে কলা খাওয়ার ছবি ফেসবুকে ছেড়ে নাকি তাঁর বাবাকে অপমান করেছে! এ কারণে আমাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ব্যাপক মারধর করেছে।’

তবে মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাব উদ্দিন সাবেল বলেন, ‘আমি ষড়যন্ত্রের শিকার। একটি মহল আমার বিরুদ্ধে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে।’ এ ব্যাপারে জুড়ী থানার ওসি সঞ্জয় চক্রবর্তী বলেন, ‘এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’