kalerkantho

রবিবার । ১ কার্তিক ১৪২৮। ১৭ অক্টোবর ২০২১। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ফুলপুরে কোটি টাকা দিয়ে বিপাকে চাকরিপ্রত্যাশীরা

ফুলপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

২০ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের ফুলপুরে প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শিব্বির আহমেদের মৃত্যুতে বিপাকে পড়েছেন চাকরিপ্রত্যাশীরা।

চাকরির প্রলোভনে পড়ে বিভিন্ন সময় তাঁদের দেওয়া এক কোটিরও বেশি টাকা তাঁর পরিবারের কাছ থেকে ফেরত পাওয়া নিয়ে আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এ কারণে গত মঙ্গলবার রাতে শিব্বির আহমেদের লাশ দাফনে বাধা দেন ভুক্তভোগীরা। এ নিয়ে ওই পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তাঁদের ধাওয়াধাওয়িরও ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে রাত ১১টায় পুলিশের উপস্থিতিতে তড়িঘড়ি করে লাশ দাফন করা হয়। এর আগে গত মঙ্গলবার দুপুরে শিব্বির আহমেদ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান। তিনি ফুলপুর পৌরসভার সুরুজ্জমানের ছেলে।

গত মঙ্গলবার রাতে ফুলপুর পৌরসভার সাহাপুর এলাকায় শিব্বিরের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, স্থানীয় আলমগীর আলম তিন লাখ, তানিয়া সুলতানা লাকী পাঁচ লাখ, সারোয়ার হোসেন ছয় লাখ, শামীম চার লাখ, বিউটি ছয় লাখ, আব্দুস সালাম চার লাখ, কেফায়েত উল্লাহ পাঁচ লাখ, জিয়াউল হক তিন লাখ, সামসুন্নাহার এক লাখ, আনোয়ার তিন লাখ, সুমন মিয়া তিন লাখ, স্বপন মিয়া ৪০ লাখ, আরিফুল ইসলাম তিন লাখ ৫০ হাজার, ফখরুল ইসলাম ১০ লাখ, শিবলু তিন লাখ, হাবিবুর রহমান ও লোকমান ১১ লাখ টাকা পাওনার দাবি নিয়ে শিব্বিরের বাড়িতে ভিড় করেছেন।

এ সময় বিক্ষোভরত পাওনাদারদের উদ্দেশে শিব্বিরের স্ত্রী কাস্টম কর্মকর্তা হেলেনা আক্তার বলেন, ‘আপনাদের প্রমাণ সাপেক্ষে কিছু টাকা শিব্বিরের জমি বিক্রি করে পরিশোধ করব। আমার জমি ও নাবালক সন্তানের জমি বিক্রি করে তা পরিশোধ করা সম্ভব নয়।’ ফুলপুর থানার ওসি ইমারত হোসেন গাজী বলেন, পাওনাদারদের বুঝিয়ে লাশ দাফন করা হয়েছে। একই সঙ্গে বিষয়টি সমাধানের জন্য তাঁদের সঙ্গে আলোচনা চলছে।



সাতদিনের সেরা