kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

বরাদ্দ জটিলতায় ৮ বছর

বদরগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধার নামে মিলনায়তন

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, রংপুর   

১৯ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রংপুরের বদরগঞ্জে দীর্ঘ আট বছর ধরে মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মমিন চৌধুরী পৌর অডিটরিয়াম নির্মাণের কাজ ঝুলে আছে। অর্থ বরাদ্দ না পাওয়ায় মিলনায়তনটি নির্মাণ করা যাচ্ছে না। এ জন্য পৌর কর্তৃপক্ষের অবহেলাকে দায়ী করেছেন অনেকে। অথচ বদরগঞ্জ পৌরবাসীর, বিশেষ করে সাংস্কৃতিক অঙ্গনের মানুষের প্রাণের দাবি ছিল এই মিলনায়তন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, বদরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরের মিলনায়তনটি জরাজীর্ণ। এ মিলনায়তনের আসনসংখ্যাও সীমিত। এখানে একই দিনে একাধিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন করা সম্ভব হয় না। মিলনায়তনে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামও নেই। এ কারণে বদরগঞ্জ পৌরবাসীর দাবি ছিল মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মমিন চৌধুরী পৌর অডিটরিয়াম নির্মাণ করা হোক। ২০১৩ সালে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে বদরগঞ্জ পৌরসভা চত্বরে মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মমিন চৌধুরী পৌর অডিটরিয়াম নির্মাণের প্রাক্কলন অনুমোদনের বিষয়ে মতামত চেয়ে এলজিইডিতে প্রস্তাব পাঠানো হয়। এ কাজের জন্য পৌরসভার প্রস্তাবিত প্রাক্কলিত মূল্য ছিল পাঁচ কোটি ৯৮ লাখ সাত হাজার ১৯ টাকা। কিন্তু নিরীক্ষা শেষে এলজিইডির পক্ষ থেকে প্রাক্কলিত মূল্য ধরা হয় পাঁচ কোটি ৭৩ লাখ ৯৭ হাজার ৮০২ টাকা। ফলে ২৪ লাখ ৯ হাজার ২১৭ টাকা ঘাটতি থেকে যায়। তখন এলজিইডি থেকে বলা হয়, এ টাকা পৌরসভাকে দিতে হবে। এ অবস্থায় প্রকল্পটির কাজ ঝুলে যায়।

বদরগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহফুজার রহমান অভিযোগ করেন, ‘তত্কালীন মেয়রের আন্তরিকতার অভাবে তা (প্রকল্পটি) বাস্তবায়ন করা যায়নি।’

বদরগঞ্জের বিশিষ্ট কবি ও সাহিত্যিক আবুল কাসেম সরকার বলেন, ‘এখানে ভালো কোনো অনুষ্ঠানের আয়োজন করা সম্ভব হয় না।’

প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের সাবেক আঞ্চলিক পরিচালক আব্দুল লতিফ প্রামাণিক বলেন, ‘মমিন চৌধুরী ছিলেন সংস্কৃতিমনা মানুষ। তাঁর নামে অডিটরিয়াম নির্মাণ করা হলে বদরগঞ্জের মানুষের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড চর্চার পথ প্রসারিত হবে।’