kalerkantho

সোমবার । ৭ আষাঢ় ১৪২৮। ২১ জুন ২০২১। ৯ জিলকদ ১৪৪২

আদমদীঘি

পণ্যবাহী ট্রেনে চড়ছে যাত্রী!

মাদক পরিবহনের অভিযোগও মিলেছে

আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধি   

১১ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে গত বছর দফায় দফায় লকডাউন দেয় সরকার। ফলে বিভিন্ন যানবাহনসহ ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকে। এক পর্যায়ে জীবন আগে, না জীবিকা—এই নিয়ে শুরু হয় আলোচনা। এই পরিস্থিতিতে আটটি বিশেষ পার্সেল (পণ্যবাহী) ট্রেন চালু করে রেল কর্তৃপক্ষ। উদ্দেশ্য কৃষক যাতে কৃষিপণ্য সহজে পরিবহন করতে পারেন। তখন থেকে এ পর্যন্ত বগুড়ার আদমদীঘির সান্তাহার জংশন স্টেশন হয়ে দুটি করে পার্সেল ট্রেন চলাচল করছে। কিন্তু ট্রেনগুলোতে যাত্রী তোলা হচ্ছে বলে অভিযোগ। শুধু তা-ই নয়, মাদকও বহন করা হচ্ছে। এই অনিয়মের সঙ্গে স্টেশন কর্মকর্তা ও ট্রেনের স্টাফরা জড়িত বলে অভিযোগ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, সান্তাহার জংশন স্টেশন হয়ে খুলনা-চিলাহাটি ও ঢাকা-পঞ্চগড় রুটে প্রতিদিন দুটি করে পার্সেল ট্রেন চলাচল করছে। ট্রেনগুলোতে শাকসবজি, দেশি ফলমূল, তেল, সারসহ বিভিন্ন মালামাল পরিবহন করা হচ্ছে।

গত রবিবার দুপুরে সরেজমিন স্টেশনে দেখা যায়, ১০ থেকে ১৫ জন যাত্রী খুলনা থেকে চিলাহাটিগামী পার্সেল ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করছেন।

এক পর্যায়ে ট্রেনটি এলে কয়েকজন যাত্রী তাতে চড়েও বসে। কিন্তু ক্যামেরা দেখার পর ট্রেনটিতে দায়িত্বরতরা অন্যদের আর উঠতে দেননি। ট্রেনটি প্ল্যাটফর্ম ছেড়ে যাওয়ার পর মমতা, উজ্জ্বলসহ বেশ কয়েকজন যাত্রীর সঙ্গে কথা হয়। তাঁরা নওগাঁ থেকে এসেছেন বলে জানান। এ সময় তাঁরা দাবি করেন, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করেই তাঁরা এসেছেন। কিন্তু সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে তাঁদের ট্রেনে উঠতে দেওয়া হয়নি।

এর আগে গত ৫ মে রাতে পঞ্চগড় থেকে ঢাকাগামী পার্সেল ট্রেন থেকে ২৮২ বোতল ফেনসিডিল জব্দসহ রেলের দুই কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়। ট্রেনটিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মচারীদের সহযোগিতায় র‌্যাব-৫-এর রাজশাহীর সদস্যরা তাঁদের গ্রেপ্তার করেন।

সান্তাহার স্টেশন মাস্টার হাবিবুর রহমান হাবিব যাত্রী পরিবহনের কথা স্বীকার করে বলেন, ‘প্রথম দিকে পার্সেল ট্রেনে কিছু যাত্রী ও রেলওয়ের স্টাফরা যেত। পরে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ায় যাত্রী বা রেলওয়ের কোনো স্টাফকেই নেওয়া হচ্ছে না। আর মাদকের বিষয়টি রেলওয়ের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীরা দেখবেন।’

সান্তাহার রেলওয়ে থানার ওসি মনজের আলী পার্সেল ট্রেনে মাদক বহনের কথা স্বীকার করে বলেন, ‘দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।’