kalerkantho

বুধবার । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৯ মে ২০২১। ৬ শাওয়াল ১৪৪

নন্দীগ্রামে ১৪ বস্তা ভিজিডির চাল জব্দ

সিরাজগঞ্জে চার কার্ডের চাল আত্মসাৎ ডিলারের

সিরাজগঞ্জ ও নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি   

২২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বগুড়ার নন্দীগ্রামে অবৈধভাবে বিক্রির সময় ১৪ বস্তা (প্রতিটি ৩০ কেজি করে) ভিজিডির চাল জব্দ করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার দুপুরে উপজেলার থালতা মাজগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সামনে থেকে অবৈধভাবে সুবিধাভোগীর কাছ থেকে কেনার সময় ফড়িয়াদের কাছ থেকে এই চাল জব্দ করা হয়। তবে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যান ফড়িয়ারা। স্থানীয়রা জানায়, বুধবার সকালে থালতা মাজগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ৪২১ জন সুবিধাভোগীদের প্রতিজনকে ৩০ কেজি করে ভিজিডির চাল বিতরণ করা হয়। এ সময় ইউনিয়ন পরিষদের বাইরে সুবিধাভোগীদের কাছ থেকে কম দামে ভিজিডির চাল কিনছিলেন এলাকার ফড়িয়ারা। সংবাদ পেয়ে কুমিড়া পণ্ডিতপুকুর ফাঁড়ির একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে চাল ফেলে দৌঁড়ে পালিয়ে যান ফড়িয়ারা। পরে সেখানে ফেলে রাখা ১৪ বস্তা চাল জব্দ করে পুলিশ।

এদিকে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বাগবাটীতে খাদ্য অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চারটি কার্ডের চাল দীর্ঘদিন ধরে প্রকৃত কার্ডধারীদের দিচ্ছিলেন না সংশ্লিষ্ট ডিলার দানেজ আলী। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া চলছে। অভিযোগে জানা যায়, বাগবাটী ইউনিয়নের রাঙ্গালিয়াগাতী গ্রামের জাহের আলীর মেয়ে খাদিজা খাতুন, আলামিনের স্ত্রী সীমা খাতুন, আবেদ আলীর মেয়ে আজুবা খাতুন ও নান্দিনা গ্রামের শরীফ শেখের মেয়ে এসমেতারা খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজি দরের চালের তালিকাভুক্ত হন। এই চার কার্ডধারীর মধ্যে বিতরণ না করে ডিলার দানেজ আলী ২০১৬ সাল থেকে চাল আত্মসাৎ করে আসছেন। এ বিষয়ে উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন বলেন, এ বিষয়ে ডিলারের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 



সাতদিনের সেরা