kalerkantho

রবিবার। ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৬ মে ২০২১। ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

তালায় দুই চিকিৎসক লাঞ্ছিত

শেরপুরে স্বাস্থ্যকর্মীকে মার

শেরপুর ও তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি   

২২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সাতক্ষীরার তালায় রোগীর স্বজনদের বিরুদ্ধে দুই চিকিৎসকসহ কয়েকজন স্বাস্থ্যকর্মীকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ উঠেছে। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, হাজরাকাঠি গ্রামের শাহাবুদ্দীন সরদারের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী দিনা বেগমকে মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান স্বজনরা। কিন্তু অনেকবার অনুরোধের পরও কোনো চিকিৎসক তাঁকে দেখতে আসেননি। বিকেলে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে নার্সরা তড়িঘড়ি করে কর্তব্যরত চিকিৎসককে ডেকে আনেন।

এ সময় প্রসূতির অস্ত্রোপচার (সিজার) করার সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসক। সে অনুযায়ী প্রসূতির শরীরে চেতনানাশক ইনজেকশন প্রয়োগ করা হলেও তাঁর চেতনা যায়নি। তখন তাঁকে আরেকটি চেতনানাশক ইনজেকশন দেওয়া হয়।

এতে তাঁর শারীরিক অবস্থার আরো অবনতি হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে অস্ত্রোপচার না করেই প্রসূতিকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এতে রোগীর স্বজনরা উত্তেজিত হয়ে অপারেশন থিয়েটারে (ওটি) ঢুকে ডা. অতনু ঘোষ ও ডা. ফারহা ফেরদৌসীসহ কয়েকজন স্বাস্থ্যকর্মীকে লাঞ্ছিত করেন। এ সময় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

অন্যদিকে শেরপুরে নারী সহকর্মীকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় ইন্টার্ন (শিক্ষানবিশ) মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট নাজমুল ইবনে হাফিজ শুভকে পেটানোর অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বুধবার দুপুরে সদর হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

এতে ক্ষুব্ধ হয়ে শতাধিক ইন্টার্ন মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট হাসপাতালের সামনের রাস্তা এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আরাফাতকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে সদর থানার ওসি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, মামলার প্রস্তুতি চলছে।