kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

ছয় মাসেও ‘জীবিত’ হতে পারেননি সালেহ

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি   

১২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ছয় মাসেও ‘জীবিত’ হতে পারেননি সালেহ

বরগুনার তালতলীতে জীবিত এক ব্যক্তিকে মৃত দেখিয়ে ভোটার তালিকা থেকে নাম বাদ দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ওই ব্যক্তি উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের আগাঠাকুরপাড়া (নাওভাঙ্গা) গ্রামের বাসিন্দা বাহার আলী হাওলাদারের ছেলে আবু সালেহ হাওলাদার। ভোটার তালিকায় মৃত থাকায় বিভিন্ন ধরনের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত তিনি।

ভুক্তভোগী আবু সালেহ হাওলাদার বলেন, ‘আমার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর ০৪১০৯৩৯১২৭৪২৬। মাস ছয়েক আগে ভোট দিতে গিয়ে আমি জানতে পারি, মৃত্যুজনিত কারণে ভোটার তালিকা থেকে আমার নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। এরপর বিষয়টি নিয়ে আমি উপজেলা নির্বাচন অফিসে যোগাযোগ করি। তাদের পরামর্শে সে সময় আমি ভোটার তালিকায় নাম পুনরায় অন্তর্ভুক্ত করার আবেদন করি। কিন্তু আবেদন করার পর ছয় মাস পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত নির্বাচন অফিস এ ব্যাপারে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়নি। এতে আমি ভোট দেওয়া থেকে বিরত থাকাসহ সব ধরনের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত রয়েছি। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আমার অনুরোধ, দ্রুত আমার নাম সংশোধন করে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হোক।’

বরগুনা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা দিলীপ কুমার হাওলাদার বলেন, ‘অপারেটরদের ভোটার আইডি নম্বর ভুল দেওয়ার কারণে এমনটি হতে পারে। যেহেতু তিনি জীবিত আছেন, তাই সশরীরে আমার অফিসে এসে আবেদন করলে দ্রুত সেটি ঢাকায় পাঠিয়ে দেওয়া হবে। সেখান থেকে ভোটার তালিকায় তাঁর নাম পুনরায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে।’