kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

কলেজ শিক্ষকের গুলিতে বিএনপি নেতা বিদ্ধ

জমির সীমানাপ্রাচীর নিয়ে বিরোধ

ঝালকাঠি ও রাজাপুর প্রতিনিধি   

১২ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঝালকাঠির রাজাপুরে বিরোধীয় জমিতে সীমানাপ্রাচীর নির্মাণকে কেন্দ্র করে এক কলেজ শিক্ষকের গুলিতে বিএনপি নেতা গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। গতকাল রবিবার সকালে উপজেলা সদরের মেডিক্যাল মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ ব্যক্তির নাম আব্দুল করিম বাবুল মৃধা (৫৭)। তিনি রাজাপুর উপজেলা বিএনপির শ্রমবিষয়ক সম্পাদক ও সাংগর গ্রামের নুরুল হক মৃধার ছেলে। গুরুতর অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনার পর গতকাল দুপুরে অভিযুক্ত আলহাজ লালমোন হামিদ মহিলা কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক মাহফুজুর রহমানের মেডিক্যাল মোড়ের বাসায় অভিযান চালিয়ে একনলা বন্দুক, এক রাউন্ড গুলি, একটি চাকু ও একটি দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় বিকেল সাড়ে ৩টায় কলেজ শিক্ষক মাহফুজুর রহমান রাজাপুর থানায় এসে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেন। মাহফুজুর রহমান মেডিক্যাল মোড় এলাকার মৃত মমতাজ উদ্দিন আহম্মেদের ছেলে।

পুলিশ ও গুলিবিদ্ধের পরিবার জানায়, বাবুল মৃধাদের সঙ্গে জমি নিয়ে পুরনো বিরোধ রয়েছে প্রভাষক মাহফুজুর রহমানের শ্বশুর মরহুম মোহাম্মদ শাহ আলম জোমাদ্দারের। বিরোধীয় জমিতে গত শনিবার জোর করে শ্রমিক দিয়ে সীমানাপ্রাচীরের নির্মাণকাজ শুরু করেন মাহফুজুর রহমান। বিষয়টি নিয়ে থানায় অভিযোগ দেন বাবুল মৃধা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু পরদিন সকালে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে আবারও কাজ শুরু করলে বাবুল মৃধা ও তাঁর ছোট ভাই বরকত বাধা দেন। তাঁদের মধ্যে বাগবিতণ্ডার এক পর্যায়ে বাবুলকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়েন প্রভাষক মাহফুজুর রহমান। এতে বাবুল গুরুতর জখম হন। রাজাপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।