kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

ইউপি নির্বাচন ঘিরে হামলা সংঘর্ষ ভাঙচুর গুলি

বিভিন্ন স্থানে আহত ৫৫

প্রিয় দেশ ডেস্ক   

২৮ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



প্রথম ধাপে দেশের বিভিন্ন স্থানে ইউপি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১১ এপ্রিল। নির্বাচনের দিনক্ষণ যত ঘনিয়ে আসছে বিভিন্ন স্থানে তত বেশি সহিংসতার খবর পাওয়া যাচ্ছে। এলাকায় আধিপত্য ধরে রাখতে এক পক্ষ আরেক পক্ষের সঙ্গে হামলা-সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ছে। গত শুক্র ও গতকাল শনিবারও বিভিন্ন ইউনিয়নে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৫৫ জন আহত হয়েছে। খুলনা অফিস ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।

খুলনা : জেলার পাইকগাছা উপজেলার সোলাদানা ইউনিয়নে পোস্টার সাঁটানোকে কেন্দ্র করে গতকাল ক্ষমতাসীন দলের ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও তাঁর সমর্থকদের হাতে স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ১০ রাউন্ড গুলি ছুড়েছে। ভুক্তভোগী, পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, গতকাল দুপুরে বেতবুনিয়া গ্রামে বর্তমান চেয়ারম্যান ও স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এনামুল হকের পোস্টার টানাতে গেলে প্রতিপক্ষ নৌকার প্রার্থী আব্দুল মান্নান গাজীর সমর্থকরা বাধা দেয়। এ খবর শুনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘটনাস্থলে এলে তাঁদের ওপর নৌকার সমর্থকরা হামলা চালায়। এতে চেয়ারম্যান এনামুলসহ অন্তত ২০ জন আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঝালকাঠি : জেলার বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষে আওয়ামী লীগের দুই বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল ও বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার রাতে সদর উপজেলার গাবখান-ধানসিঁড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী জাকির হোসেন রূপসীয়া গ্রামে গণসংযোগ করছিলেন। এ সময় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবুল কালাম মাসুমের কর্মীরা কুপিয়ে জাকির হোসেনকে আহত করেন। একই রাতে নলছিটি উপজেলার কুলকাঠি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী শামসুল আলম মল্লিকের নির্বাচনী প্রচার অনুষ্ঠানে হামলা চালান প্রতিপক্ষের লোকজন। একই রাতে সদর উপজেলার গাভারামচন্দ্রপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আমিনুল ইসলাম লিটনের প্রচার মাইক ভাঙচুরের পাশাপাশি দুই কর্মীকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে।

মঠবাড়িয়া (পিরোজপুর) : মঠবাড়িয়ায় নৌকা প্রতীকের সমর্থকদের হামলায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর অন্তত ১০ জন সমর্থক আহত হয়েছেন। গতকাল দুপুরে বেতমোড় ইউনিয়নসংলগ্ন সড়কে এ সহিংসতার ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত সাতজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

স্বরূপকাঠি (পিরোজপুর) : স্বরূপকাঠিতে প্রতিদ্বন্দ্বী দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ১০ জন আহত, একটি মোটরসাইকেলে আগুন ও পাঁচ-সাতটি মোটরসাইকেল ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলার সারেংকাঠি ইউনিয়নের গোবিন্দগুহকাঠি গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

শরণখোলা (বাগেরহাট) : উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের চালিতাবুনিয়া গ্রামে ইউপি সদস্য প্রার্থী জাহাঙ্গীর খলিফা ও জাফর তালুকদারের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নারীসহ পাঁচজন আহত হয়েছেন। শরণখোলা থানার ওসি সাইদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।