kalerkantho

বুধবার । ৯ আষাঢ় ১৪২৮। ২৩ জুন ২০২১। ১১ জিলকদ ১৪৪২

ভুয়া কম্পানির নামে প্রতারণা

চার কোটি টাকা আত্মসাৎ অবশেষে ধরা তরিকুল

রংপুর অফিস   

২১ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভুয়া কম্পানির এজেন্ট নিয়োগের নামে রংপুর মহানগরসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় পাঁচ শতাধিক ব্যক্তিকে চাকরি দেওয়ার নামে প্রায় চার কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়া প্রতারক তরিকুল ইসলাম অবশেষে গ্রেপ্তার হয়েছেন। রংপুর মহানগর পুলিশ গত শুক্রবার বগুড়ার শিবগঞ্জের কালিতলা বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে। গতকাল শনিবার মহানগর পুলিশের কার্যালয়ে বিশেষ প্রেস ব্রিফিংয়ে উপকমিশনার (ডিবি) কাজী মুত্তাকী ইবনু মিনান এ তথ্য জানান।

প্রতারক তরিকুল ইসলাম বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার বারহাট্টা দামপাড়া এলাকার আব্দুস সাত্তারের ছেলে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, ২০২০ সালে মুক্তাপানি ও টিএমএফ (তরিকুল, মোতালেব, ফিরোজ) ট্রেডার্স লিমিটেড নামে ভুয়া কম্পানি খোলেন তরিকুল ইসলাম। এজেন্ট নিয়োগের জন্য রংপুর বিভাগের সাত জেলার বিভিন্ন উপজেলায় অফিস চালু করা হয়। ওই কম্পানির এজেন্ট নিয়োগ দেওয়া হবে জানিয়ে পত্রিকায় ও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুয়া বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন তিনি। এতে রংপুর মহানগরসহ বিভাগের ছয় শতাধিক ব্যক্তি আবেদন করেন। এরপর পাঁচ শতাধিক ব্যক্তির প্রত্যেকের কাছ থেকে ৫০ হাজার থেকে তিন লাখ টাকা করে নেন তরিকুলসহ তাঁর সহযোগীরা। এভাবে তরিকুল পর্যায়ক্রমে প্রায় চার কোটি টাকা হাতিয়ে নেন। পরে মুক্তাপানির এজেন্টদের পণ্য সরবরাহ না করে তরিকুল ও তাঁর সহযোগীরা রংপুর থেকে ঢাকায় পালিয়ে যান। গত জানুয়ারি মাসে তরিকুলের নামে ভুক্তভোগীরা প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন।

তরিকুল ভুয়া কম্পানির পাশাপাশি বিভিন্ন স্থানে চীনা কম্পানিসহ বিভিন্ন বেনামি কম্পানি এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয়/অফিসে নিয়োগ দেওয়ার নামে প্রতারণা করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেন।



সাতদিনের সেরা