kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

মায়ের সামনেই শিশুকে নির্যাতন শিক্ষকের

‘আমার তখন বুকটা ফেটে যাচ্ছিল। আমি ওই শিক্ষকের উপযুক্ত বিচার চাই’

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি   

৫ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে বাড়ি গিয়ে মায়ের সামনে থেকেই ইয়াছিন আরাফাত (৮) নামের এক ছাত্রকে তার দিয়ে চাবুকের মতো পেটাতে পেটাতে মাদরাসায় নিয়ে গেছেন শিক্ষক।

মাদরাসায় নিয়েও বেদম পেটানো হয়েছে শিশুটিকে। শিশুটি ঠিকমতো মাদরাসায় না যাওয়ায় তাহজীবুল উম্মাহ ইসলামিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষক ওমর ফারুক এভাবে নির্যাতন করেন।

ইয়াছিনের শরীরে আঘাতের ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে গেছে। ইয়াসিন রায়পুরের নতুন বাজার এলাকার প্রবাসী কাজী আলী হায়দারের ছেলে। সে ওই মাদরাসায় দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে।

এ ঘটনায় গত বুধবার রাতে ইয়াছিনের মা লাভলী বেগম থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। পরে পুলিশ ওই মাদরাসায় অভিযান চালালেও অভিযুক্ত শিক্ষককে পায়নি। তাঁর বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায় বলে জানা গেছে।

ইয়াসিনের মা লাভলী বেগম বলেন, ‘আমার সামনে থেকেই ইয়াসিনকে মারতে মারতে নিয়ে গেছে ওই শিক্ষক। আমার তখন বুকটা ফেটে যাচ্ছিল। আমি ওই শিক্ষকের উপযুক্ত বিচার চাই।’

মাদরাসাটির অধ্যক্ষ আব্দুল বাতেন বলেন, ‘শিশুটিকে দেখার পর আমি নিজেই বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছি। প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা কমিটিসহ সবার সঙ্গে কথা বলে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

রায়পুর থানার ওসি আবদুল জলিল বলেন, তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

মন্তব্য