kalerkantho

বুধবার । ১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ এপ্রিল ২০২১। ১ রমজান ১৪৪২

এমপিকে মঞ্চে উঠতে বাধা

দুর্গাপুরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা এস এম কামালের সামনেই ঘটনাটি ঘটে

দুর্গাপুর (রাজশাহী) প্রতিনিধি   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। কিন্তু আচরণবিধি লঙ্ঘন করে এই অনুষ্ঠানে পৌর নির্বাচনে দলীয় মেয়র পদপ্রার্থীর পক্ষে ভোট চাওয়া হয়েছে। শুধু তা-ই নয়, অনুষ্ঠানের মঞ্চে সংসদ সদস্যকে (এমপি) উঠতে বাধা দেওয়াসহ লাঞ্ছিত করা হয়েছে বলে অভিযোগ। আর এ কাজ করা হয়েছে কেন্দ্রীয় নেতার সামনেই।

ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার রাজশাহীর দুর্গাপুরে। এ ঘটনায় এমপির অনুসারী ছাড়াও দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার দুর্গাপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে উপজেলা আওয়ামী লীগ। বিকেলে এই অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেরাজ উদ্দিন মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওয়াদুদ দারাকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সন্ধ্যায় প্রধান অতিথি কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল এসে অনুষ্ঠানস্থলে আসেন।

এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের এমপি অধ্যাপক ডা. মনসুর রহমান। কিন্তু মঞ্চে ওঠার সময় তাঁকে বাধা দেওয়া হয়। এক পর্যায়ে পৌর নির্বাচনে দলীয় মেয়র পদপ্রার্থী তোফাজ্জল হোসেনের পক্ষে ভোট চাওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ইব্রাহিম আলী, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, বাগমারা উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান জাকিরুল ইসলাম সান্টুসহ অন্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এমপি ডা. মনসুর অভিযোগ করে বলেন, ‘সন্ধ্যার একটু আগে এস এম কামাল দুর্গাপুরে পৌঁছলে তাঁর ডাকে আমিও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাই। কিন্তু মঞ্চে ওঠার আগেই এই আসনের সাবেক এমপির ছেলে বদরুল ইসলাম তাপস সরাসরি আমার সামনে এসে আমাকে ঘিরে ধরে; মঞ্চে উঠতে বাধা দেয়।’

এ সময় তিনি আরো অভিযোগ করেন, ‘পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী আমাকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের মঞ্চে উঠতে দেওয়া হয়নি। যিনি এই কাজটি করেছেন তিনি আমার ছেলের বয়সী। তাকে আমি অত্যন্ত স্নেহ করি।’ বিষয়টি কেন্দ্রের অন্য নেতাদের জানাবেন বলে জানিয়েছেন এমপি। অন্যদিকে আচরণবিধি ভাঙার বিষয়টি স্বীকার করলেও কী ব্যবস্থা নেবেন, তা জানাননি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও সহকারী রিটার্নিং অফিসার আসাদুজ্জামান। প্রসঙ্গত, আগামীকাল রবিবার দুর্গাপুর পৌরসভা নির্বাচন।

মন্তব্য