kalerkantho

রবিবার। ২২ ফাল্গুন ১৪২৭। ৭ মার্চ ২০২১। ২২ রজব ১৪৪২

পৌর নির্বাচন, উলিপুর

ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থীর নামে নারী নির্যাতন মামলা

রোকনুজ্জামান মানু, উলিপুর (কুড়িগ্রাম)   

১৫ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থীর নামে নারী নির্যাতন মামলা

আগামী ৩০ জানুয়ারি উলিপুর পৌরসভা নির্বাচন। এ পৌরসভায় মেয়র পদে তিনজন প্রার্থী রয়েছেন। তাঁরা হলেন পৌর আওয়ামী লীগের সদস্য মো. মামুন সরকার (নৌকা), ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ৮ নম্বর ওয়ার্ড সভাপতি আতাউর রহমান (হাতপাখা) ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. হায়দার আলী মিঞা (ধানের শীষ)। নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হলফনামার তথ্য মতে, ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থীর নামে নারী ও শিশু নির্যাতনের একটি মামলা রয়েছে। বিএনপি প্রার্থী একবার পৌর মেয়র ও একবার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকলেও তাঁর স্ত্রীর সম্পদের পরিমাণ বেশি রয়েছে।

বিএনপি প্রার্থী

হায়দার আলী মিঞার পেশা ব্যবসা। বিএ পাস। তিনটি মামলার দুটি থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন। ব্যবসা থেকে তাঁর বার্ষিক আয় চার লাখ টাকা। নগদ টাকার পরিমাণ ৩৪ লাখ ২১ হাজার ৪১৯ টাকা। স্ত্রীর নামে রয়েছে ২৬ লাখ ১৪ হাজার ১৩৯ টাকা। এ ছাড়া স্ত্রীর নামে বিভিন্ন ধরনের সঞ্চয় ও স্থায়ী আমানতের পরিমাণ ৩০ লাখ টাকা। স্বর্ণ নিজ নামে পাঁচ ভরি থাকলেও স্ত্রীর নামে রয়েছে ১০ ভরি। স্ত্রীর নামে কৃষিজমি রয়েছে ৭৮ শতাংশ, নিজ নামে অকৃষি জমি রয়েছে ৩.৬৬ শতাংশ। আড়াই শতাংশ জমির ওপর রয়েছে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান। জনতা ব্যাংক থেকে ঋণের পরিমাণ তিন লাখ ৪০ হাজার ৫১৯ টাকা।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী

মো. মামুন সরকার পেশায় ব্যবসায়ী। স্নাতকোত্তর পাস। ব্যবসা থেকে তাঁর বার্ষিক আয় চার লাখ ৭৩ হাজার ৪১৭ টাকা। নগদ টাকার পরিমাণ দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা। বিভিন্ন ব্যাংকে জমা রয়েছে ২৮ লাখ ৫১ হাজার ৫৬৯ টাকা। স্বর্ণ ২৯ ভরি। ইলেকট্রনিক সামগ্রী দুই লাখ ৪৬ হাজার ৫০০ টাকা, আসবাবপত্র এক লাখ ২০ হাজার এবং অন্যান্য সম্পদের পরিমাণ রয়েছে ২০ হাজার টাকা। আত্মীয়-স্বজনের কাছে ঋণের পরিমাণ চার লাখ টাকা।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্থী

আতাউর রহমানের পেশা ব্যবসা। শিক্ষাগত যোগ্যতা দাখিল পাস। ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা চলমান। কৃষি খাত থেকে বার্ষিক আয় এক লাখ ৮৫ হাজার টাকা। ব্যবসা থেকে আয় দুই লাখ টাকা। নগদ অর্থের পরিমাণ ১০ হাজার টাকা। জমা আছে এক লাখ এক হাজার টাকা। কৃষিজমি ৪.৬৭ শতাংশ। এ ছাড়া বিয়ের উপহার হিসেবে রয়েছে ১০ ভরি স্বর্ণালংকার। ইলেকট্রনিক সামগ্রী ২০ হাজার ও আসবাবপত্র ৫০ হাজার টাকা।

মন্তব্য