kalerkantho

সোমবার। ৪ মাঘ ১৪২৭। ১৮ জানুয়ারি ২০২১। ৪ জমাদিউস সানি ১৪৪২

জলঢাকায় স্বাস্থ্যবিধি মানছে না কেউ

অনেকেই বলছেন, করোনা নিয়ে এখন আর প্রথম ধাপের মতো প্রচার নেই

জলঢাকা (নীলফামারী) প্রতিনিধি   

২৭ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হলেও নীলফামারীর জলঢাকায় কেউ স্বাস্থ্যবিধি মানছে না। মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, ওয়াশ বেসিন ব্যবহার করছে না সাধারণ মানুষ। ফলে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের স্থাপন করা ওয়াশ বেসিনগুলো নষ্ট হয়ে গেছে। অনেকেই বলছেন, করোনা নিয়ে এখন আর প্রথম ধাপের মতো প্রচারণা নেই। ফলে করোনাকে এখন আর তেমন একটা ভয় পাচ্ছে না সাধারণ মানুষ।

উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল দপ্তর সূত্র জানায়, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে চলমান করোনাকালে সাধারণ মানুষের হাত ধোয়ার সুবিধার্থে এ উপজেলায় তিনটি ওয়াশ বেসিন বরাদ্দ দেয় সরকার। সেগুলো উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, উপজেলা ভূমি অফিস ও উপজেলা পরিষদ চত্বরে স্থাপন করা হয়। এ ছাড়া গোটা উপজেলায় স্থাপনের জন্য আরো ১১২টি ওয়াশ বেসিনের চাহিদা পাঠানো হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল কর্মকর্তা ডা. মেজবাহুর রহমান মেজবাহ বলেন, ‘হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক পরা ও হাত পরিষ্কার করার ব্যাপারে মানুষের আগ্রহ কমে গেছে। আমাদের কাছে নির্দেশনা এসেছে, নো মাস্ক, নো সার্ভিস। কিন্তু এমন নির্দেশনা রোগীসহ তাদের স্বজনরা মানছে না।’

উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপসহকারী প্রকৌশলী আব্দুল গফুর তালুকদার বলেন, ‘করোনাভাইরাস প্রথম ধাপে জনসাধারণের মধ্যে ওয়াশ বেসিনগুলোর ব্যবহার ছিল। এখন আর নাই। কারণ এই জেলার প্রেক্ষাপটে মানুষের করোনা ভয় কেটে গেছে।’ এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুব হাসান বলেন, ‘জনগণ সচেতন না হলে আমরা দ্রুত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করব। যারা স্বাস্থ্যবিধি মানবে না, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য