kalerkantho

রবিবার । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৯ নভেম্বর ২০২০। ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

এক গ্রামে ১০০ রোগী

ঝিকরগাছায় কুষ্ঠ রোগ

এম আর মাসুদ, ঝিকরগাছা (যশোর)    

১ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এক গ্রামে ১০০ রোগী

যশোরের ঝিকরগাছার হাজিরবাগ ইউনিয়নের যুগিহুদা গ্রামের শতাধিক ব্যক্তি কুষ্ঠ রোগে আক্রান্ত। (ইনসেটে) আক্রান্ত কয়েকজনের হাত। ছবি : কালের কণ্ঠ

যশোরের ঝিকরগাছার হাজিরবাগ ইউনিয়নের যুগিহুদা গ্রামে শতাধিক কুষ্ঠরোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে। ব্যয়বহুল চিকিৎসা পদ্ধতি ও রোগ নিরাময় না হওয়ায় গ্রামের অনেকেই এখন আর চিকিৎসকের কাছে যান না। ফলে আশপাশের গ্রামেও দিন দিন বাড়ছে কুষ্ঠরোগীর সংখ্যা।

সরেজমিনে যুগিহুদা গ্রামে গিয়ে দেখা গেছে, এই গ্রামের সব বয়সের মানুষ কুষ্ঠরোগে আক্রান্ত। তবে নারীরা সংখ্যায় বেশি। হাত, পা, মুখ ও গায়ে গোল গোল ক্ষত।

গ্রামের আয়শা খাতুন জানান, চার বছর ধরে তাঁর পা ও হাতে গোল গোল লাল ক্ষত। দিনভর চুলকায় ও জ্বালা করে। ওষুধ খেলে কিছুদিন ভালো থাকে, পরে আবার হয়।

বছরখানেক ধরে এই রোগে ভুগছেন আতিয়ার রহমান, নাজমা খাতুন, চায়না খাতুন, আশরাফ আলী, পারভীনা খাতুন, আমেনা খাতুন, মিলি খাতুন, ফিরোজা খাতুন, আমেনা খাতুন, রুবিনা খাতুন, নুরবান খাতুন,  জাহিদ হোসেন, জবেদা খাতুন প্রমুখ। তাঁরা সবাই স্থানীয় ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিয়েছেন। কিন্তু চিকিৎসাধীন সময় ভালো থাকলেও পরে আবার এই রোগের উপসর্গ দেখা দিচ্ছে।

চীনের তিয়ানজিক শহরে লেখাপড়া করেন তৌহিদুল ইসলাম। করোনাভাইরাসের কারণে আট মাস আগে গ্রামের বাড়িতে আসেন। বাড়ি এসে এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। হাজিরবাগ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আতাউর রহমান জানান, বিষয়টি জানেন না। এই পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হওয়ার আগেই ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানাবেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. হাবিবুর রহমান জানান, ওই গ্রামে মেডিক্যাল টিম পাঠানো হবে। গ্রামবাসী কুষ্ঠরোগে আক্রান্ত হলে তাদের যথাযথ চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা