kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

কেশবপুর

বীজতলায় বাধা বাঁশের বেড়া

কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি   

৩০ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বীজতলায় বাধা বাঁশের বেড়া

যশোরের কেশবপুরের বড়েঙ্গা খালে বাঁশের বেড়া দেওয়ায় বীজতলা তৈরিতে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। ছবি : কালের কণ্ঠ

বীজতলা তৈরির সময় হয়ে এসেছে। কিন্তু জমি এখনো জলে-ই ভাসছে। এ অবস্থায় বিপাকে পড়েছেন যশোরের কেশবপুরের বিল গরালিয়ার কৃষকরা। তাঁদের অভিযোগ, সম্প্রতি এলাকার কয়েকজন মাছ ধরার জন্য বড়েঙ্গা খালে বাঁশের বেড়া দিয়েছে। আর উপজেলার বৃহত্তর এ বিলের পানি খালটি দিয়ে প্রবাহিত হয়। ফলে বিলের স্বাভাবিক পানিপ্রবাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। তাই যত দ্রুত সম্ভব বেড়া অপসারণের দাবি জানিয়েছেন তাঁরা।

প্রসঙ্গত, বড়েঙ্গা খালটি বিল গরালিয়া থেকে বড়েঙ্গা গ্রামের স্লুইস গেট দিয়ে প্রবাহিত হয়ে পাশের হরিহর নদে গিয়ে মিশেছে।

বড়েঙ্গা গ্রামের কৃষক এহসানুল হোসেন বলেন, বিলে ১০ বিঘা জমি আছে। মাছ শিকারের জন্য খালটিতে বাঁশের বেড়া দেওয়ায় বিলের পানি ঠিকমতো প্রবাহিত হতে পারছে না। দ্রুত এ বেড়া অপসারণ না করা হলে বীজতলা তৈরি করতে সমস্যায় পড়তে হবে।

কেশবপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন বলেন, ‘বিল গরালিয়ার সঙ্গে সংযুক্ত সব খাল থেকে মাছ শিকারের বেড়া সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে। এর পরও যদি খালে বেড়া থাকে তাহলে সেগুলো দ্রুত ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে অপসারণ করা হবে।’

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা এস এম আলমগীর কবীর বলেন, ‘যদি কেউ খাল ও নদীতে অবৈধভাবে বাঁশের বেড়া দিয়ে পানিপ্রবাহে বাধা সৃষ্টি করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা