kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

নিখোঁজ হয়েও স্বপদে বহাল

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি   

২৯ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নিখোঁজ হয়েও স্বপদে বহাল

মনিরুজ্জামান মনির

তিন বছর ধরে ইউনিয়ন পরিষদের সভায় অনুপস্থিত থাকা সত্ত্বেও টিকে আছে ইউপি সদস্য পদ। এই ভাগ্যবান ব্যক্তি হলেন টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার দিঘলকান্দি ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মনিরুজ্জামান মনির। তাঁর অনুপস্থিতির বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানানো হলেও কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলে দাবি ইউপি চেয়ারম্যানের।

জানা যায়, ২০১৭ সালের ৫ জুন সারা দেশব্যাপী মাদকবিরোধী অভিযানের সময় উপজেলার হামিদপুর বাজার থেকে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন মনির মেম্বার। গ্রেপ্তারের কিছু দিন পর আদালত থেকে জামিনে বের হওয়ার পরেই এলাকা ছাড়েন। তারপর থেকে তিনি নিখোঁজ রয়েছেন। প্রবাসে চলে গেছেন না আত্মগোপনে আছেন—তাও সঠিকভাবে কেউ বলতে পারেনি। তবে তাঁর পরিবারের লোকজনের দাবি, তিনি বিদেশে চলে গিয়েছিলেন। তবে এলাকাবাসীর দাবি, তিনি এলাকায় আছেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ২০১৭ সালের আগস্ট মাসে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে তিনি সর্বশেষ সম্মানী ভাতা উত্তোলন করেছেন। তাঁর অনুপস্থিতির বিষয়টি রেজল্যুশন করে লিখিতভাবে ২০১৯ সালে ২৫ সেপ্টেম্বর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানিয়েছেন বলে জানান ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় ২০১৯ সালের ৩ অক্টোবর বিষয়টি জেলা প্রশাসককে চিঠির মাধ্যমে অবগত করে। কিন্তু তার পরেও মনিরুজ্জামান মনিরের সদস্য পদ বহাল রয়েছে। অথচ স্থানীয় সরকারের ইউনিয়ন পরিষদের আইনের বিধিমালায় পর পর তিনটি সভায় উপস্থিত না থাকলে তাঁর সদস্য পদ বাতিল হওয়ার বিধান আছে। মনিরুজ্জামান মনির উপজেলার নাটশালা গ্রামের শাহজাহান তালুকদারের ছেলে। তিনি ২০১৬ সালের নির্বাচনে দিঘলকান্দি ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি একজন চিহ্নিত মাদক কারবারি। তাঁর বিরুদ্ধে ঘাটাইল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে এক ডজনেরও বেশি মামলা রয়েছে।

দিঘলকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বলেন, ‘তিনি গত তিন বছর ধরে ইউনিয়ন পরিষদের কোনো সভায় উপস্থিত হননি। বিষয়টি লিখিতভাবে ইউএনওকে জানানো হয়েছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা