kalerkantho

বুধবার । ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৫ নভেম্বর ২০২০। ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

রাজশাহী বিভাগ

১ নভেম্বর থেকে পরিবহন ধর্মঘটের ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া   

২৬ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে আট দফা দাবি মেনে নিতে সরকারকে সময় বেঁধে দিয়েছেন রাজশাহী বিভাগীয় পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। অন্যথায় পরদিন ১ নভেম্বর থেকে তাঁরা অনির্দিষ্টকালের কর্মবিরতিতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। গত শনিবার বিকেলে বগুড়ায় অনুষ্ঠিত জরুরি সভায় এ হুঁশিয়ারি দেন তাঁরা।

আট দফা দাবির উল্লেখযোগ্য হলো—রাজশাহী বিভাগের আট জেলায় অনিয়ন্ত্রিতভাবে বিআরটিসি বাস চলাচল বন্ধ করা, সিটি করপোরেশনের বাইরে বিআরটিসির ডাবল ডেকার বাস চলাচল বন্ধ করা, সড়ক-মহাসড়কে যানবাহনের কাগজপত্র তল্লাশির নামে পুলিশের চাঁদাবাজি বন্ধ করা, বিআরটিসির লিজ (ইজারা) প্রথা বাতিল করা, সড়ক-মহাসড়কে ইজি বাইক, মাহিন্দ্র, নসিমনসহ অবৈধ সব তিন চাকার যান চলাচল বন্ধ করা। 

রাজশাহী বিভাগীয় পরিবহন মালিক-শ্রমিক যৌথ কমিটির সভাপতি মো. আনছার আলী সভায় সভাপতিত্ব করেন।

সভা শেষে কমিটির সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিআরটিসির বাস ডিপো থেকে ডিপোয় চলাচল করার কথা। কোনো উপজেলা পর্যায়ে বিআরটিসির বাস চলাচল করার কথা নয়। অথচ উত্তরবঙ্গে ১৮ উপজেলায় বিআরটিসির বাস চলাচল করছে। মালিক-শ্রমিকদের চুক্তি অনুযায়ী, বিআরটিসির ডাবল ডেকারের বাস সিটি করপোরেশনের বাইরে চলাচল করার কথা নয়। অথচ বগুড়া ডিপো থেকে জয়পুরহাট রুটে হঠাৎ করে বিআরটিসির ডাবল ডেকার বাস চালু করা হয়েছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত গাড়ির ট্যাক্স টোকেন, রুট পারমিটসহ সব ধরনের কাগজপত্র হালনাগাদের সময়সীমা বর্ধিত করা হয়। অথচ সড়ক-মহাসড়কে কাগজপত্র তল্লাশির নামে পুলিশ মালিক-শ্রমিকদের হয়রানি ও চাঁদাবাজি করছে।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা