kalerkantho

সোমবার । ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৩ নভেম্বর ২০২০। ৭ রবিউস সানি ১৪৪২

নান্দাইলে চেতনা কেড়ে টাকা-গয়না লুট

এক পরিবারের তিন সদস্যসহ পাঁচজন হাসপাতালে

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

২৩ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের নান্দাইলে একই পরিবারের তিন সদস্যসহ পাঁচজনকে অচেতন করে টাকা ও অলংকার লুটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে। গত বুধবার রাতে সিংদই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অসুস্থরা গতকাল বৃহস্পতিবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে। 

গৃহবধূ নিলুফার ইয়াসমীন অভিযোগ করেন, গত বুধবার বাড়ির পাশের মাদরাসার হুজুর রুহুল আমীন ও একই মাদরাসার ছাত্র হাবিবুর রহমান তাঁদের বাড়িতে রাতের খাবার খায়। এ সময় তিনি, তাঁর স্বামী মোশাররফ হোসেন ও মেয়ে তানিয়া আক্তারও একই খাবার খায়। কিন্তু খাওয়ার পর তারা তন্দ্রাচ্ছন্ন হয়ে পড়ে। একপর্যায়ে তারা ঘুমিয়ে পড়ে। শেষ রাতের দিকে তাঁর স্বামী খাট থেকে পড়ে যান। এ শব্দে তাঁর ঘুম ভেঙে যায়। এ সময় স্বামীকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করে মেয়েকে ডেকে তোলেন তিনি। এর মধ্যে তিনি ও তাঁর মেয়ে বমি করে। কিন্তু তখনো তাঁর স্বামীর জ্ঞান ফেরেনি। গতকাল সকালে জানতে পারেন হুজুর আর তাঁর ছাত্রও অচেতন হয়ে পড়ে ছিল। পরে ভাই স্বপন মিয়াকে ডেকে এনে তাঁরা সবাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। 

নিলুফার আরো অভিযোগ করেন, ঘর থেকে তাঁর মেয়ের ব্যাগ খোয়া গেছে। ব্যাগটিতে ৭০ হাজার টাকা, সোনার তিন জোড়া কানের দুল ও সোনার একটি গলার হার ছিল। তবে আর কিছু খোয়া গেছে কি না, তা না দেখে বলতে পারবেন না। 

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. আকাইদ বলেন, ‘খাবারের সঙ্গে ঘুমের ওষুধজাতীয় কিছু মেশানো হয়ে থাকতে পারে। যে পাঁচজন ভর্তি হয়েছেন তাঁদের অবস্থা স্থিতিশীল।’

মন্তব্য