kalerkantho

সোমবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩০ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

সেই প্রাণিসম্পদ কর্তার দায়সারা জবাব

সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অফিস কক্ষে বসবাসের বিষয়ে করা শোকজের জবাব দাখিল করেছেন গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ফজলুল করিম। কিন্তু সেখানে সুকৌশলে দায় এড়িয়ে গেছেন তিনি।

প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ফজলুল করিমের অফিসকক্ষ দখল করে বসবাসের বিষয়ে গত ৯ অক্টোবর কালের কণ্ঠে একটি সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। পরে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। এ ব্যাপারে গত ১১ অক্টোবর জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে তাঁকে শোকজ করা হয়। অবশেষে গত বৃহস্পতিবার শোকজের লিখিত জবাব দেন প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ফজলুল করিম। লিখিত জবাবে তিনি দাবি করেন, চলমান করোনা পরিস্থিতিতে জনগণের কাছে কাঙ্ক্ষিত সেবা পৌঁছে দিতে সার্বক্ষণিক কর্মস্থলে অবস্থান করার সিদ্ধান্ত নেন। আর সরকারি টিকা বিক্রির বিষয়টি অসত্য বলে দাবি করেন তিনি।

এদিকে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ফজলুল করিমের শোকজের জবাব দায়সারা বলে মনে করছেন অনেকেই। গত দেড় বছর ধরে অফিসকক্ষে বসবাস করলেও মাত্র ছয় মাসের জবাব দিয়েছেন তিনি। এমনকি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার অনুমতি ছাড়াই দিনের পর দিন কর্মস্থলের বাইরে থাকার বিষয়টি জবাবে উহ্য রেখেছেন। জানা যায়, দেড় বছর ধরে অফিসকক্ষে বসবাস করছেন প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ফজলুল করিম। সেখানে নিজেই রান্নাবান্না করে খান তিনি। তা ছাড়া তাঁর বিরুদ্ধে খামার মালিকদের কাছে থেকে উৎকাচ নেওয়া ও চিকিৎসক না হয়েও ভুল ব্যবস্থাপত্র লেখার অভিযোগ রয়েছে। এ ব্যাপারে জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আব্দুস সামাদ বলেন, ‘এ ব্যাপারে ডিজি স্যার একটি তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা