kalerkantho

শনিবার। ২ মাঘ ১৪২৭। ১৬ জানুয়ারি ২০২১। ২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

‘আমরা পেশাদার চোর’

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, রংপুর   

১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘আমরা পেশাদার চোর’

রংপুরের বদরগঞ্জ অগ্রণী ব্যাংকের ভেতরে টাকা চুরির ঘটনা ধরা পড়ে সিসি ক্যামেরায়। মাথায় টুপি পরা ব্যক্তি হেলে পড়া ব্যবসায়ীর পাশে দাঁড়িয়ে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে। হাতে ব্যাগ মুখে মাস্ক পরা দুই ব্যক্তি ক্যাশ কাউন্টার থেকে টাকা নিয়ে সটকে পড়েন; (ডানে) গ্রেপ্তার খুলনার তিন প্রতারক। ছবি : সংগৃহীত

রংপুরের বদরগঞ্জে অগ্রণী ব্যাংকের উপজেলা শাখা থেকে ব্যবসায়ীর ৫০ হাজার টাকা চুরি হয়েছে। তবে পালিয়ে যাওয়ার সময় ব্যাংক থেকে প্রায় ১২ কিলোমিটার দূরে টাকাসহ তিন চোরকে ধরতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। এ সময় চুরির বিষয়টি জেনে আশপাশের লোকজন আটককৃতদের পিটুনি দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বুধবার সকালে।

এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী মাহফুজার রহমান মামলা করেছেন। মামলাটিতে ধৃত তিন চোরকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তাঁরা হলেন খুলনার সবুজবাগ গ্রামের আব্দুর রশিদের (মৃত) দুই ছেলে জামাল উদ্দিন মৃধা ও রফিকুল ইসলাম মৃধা এবং একই জেলার কৈয়াবাজার গ্রামের রফিক মিয়ার ছেলে শহীদ মিয়া। তিনজনই টাকা চুরির কথা স্বীকার করেছেন।

পুলিশের কাছে রফিকুল বলেছেন, ‘আমরা পেশাদার চোর। ছিনতাইও করি। দীর্ঘদিন ধরে ট্রেনের ভেতর যাত্রীদের টাকাসহ মালামাল চুরি-ছিনতাই করি। ছিনতাই করতে করতে খুলনা থেকে ট্রেনে চড়ে আমরা পার্বতীপুর হয়ে বদরগঞ্জে চলে আসি। অগ্রণী ব্যাংকের ভেতরে ঢুকে ক্যাশ কাউন্টারের সামনে থেকে ৫০ হাজার টাকা চুরি করে পালিয়ে যাই।’ 

ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, গতকাল সকাল ১০টা ৩৯ মিনিটের দিকে উপজেলার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাহফুজার রহমান দেড় লাখ টাকা জমা দেওয়ার জন্য ব্যাংকে আসেন। এ সময় তিনি ক্যাশ কাউন্টারের সামনে ৫০ হাজার টাকার বান্ডিল রেখে সামান্য দূরে আরেকটি চেক থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য যান। এই সুযোগে তাঁর পাশে দাঁড়িয়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন চার চোর। পরে কৌশলে ৫০ হাজার টাকার বান্ডিলটি নিয়ে সটকে পড়েন তাঁরা।

অন্যদিকে টাকা না পেয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন ব্যবসায়ী মাহফুজার রহমান। তাৎক্ষণিকভাবে ব্যাংকের ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার ফুটেজ দেখে চারজনকে শনাক্ত করা হয়। পরে টেকসেরহাট-লালদীঘি সড়কের শান্তির বাজার এলাকা থেকে তিন চোরকে ধরে পুলিশ। তবে একজন পালিয়ে যান। পরে আশপাশের লোকজন ধৃতদের পিটুনি দেয়।

অগ্রণী ব্যাংকের উপজেলা শাখার ব্যবস্থাপক আবু হাসান বলেন, ‘টাকা চুরির পর গ্রাহক মাহফুজার রহমান এসে অভিযোগ দেন। এ সময় সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে চারজনকে শনাক্ত করা হয়। পরে টেকসেরহাট-লালদীঘি সড়ক থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।’

মন্তব্য