kalerkantho

বুধবার । ১৫ আশ্বিন ১৪২৭ । ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১২ সফর ১৪৪২

বাঁধ ভেঙে ১০ গ্রাম প্লাবিত

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি   

১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



কুড়িগ্রামের সদর উপজেলায় ধরলা নদীর পানি বেড়ে দেখা দিয়েছে বন্যা। গত মঙ্গলবার গভীর রাতে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ৩০ মিটার অংশ ভেঙে ১০টি গ্রামে ঢুকে পড়েছে পানি। উপজেলার আমনক্ষেতের ৮০ শতাংশ এখন পানির নিচে। তিন দিন ধরে ধরলা যেন রুদ্ররূপ ধারণ করেছে। তীব্র ঘূর্ণিস্রোতে দুড়মুড় করে ভাঙছে ধরলা নদীর পার।

হলোখানা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য বাকিনুর ইসলাম জানান, গত ১৩ জুলাই সারডোব গ্রামের বিকল্প বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধটি ভেঙে যায়। এতে গৃহহীন হয়ে পড়ে ৭৭টি পরিবার। মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে বাঁধ ভেঙে হু হু করে ঢুকে পড়ে পানি। নিমিষেই প্লাবিত হয় ছাট কালুয়া, সারডোব, কাগজীপাড়া, হলোখানা, রাঙামাটি, খোচাবাড়ী, ভাঙামোড়সহ ১০টি গ্রাম।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম জানান, সারডোব বাঁধটি রক্ষার জন্য জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা ময়নুল ইসলাম জানান, ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর মধ্যে জরুরিভিত্তিতে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হচ্ছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা