kalerkantho

সোমবার । ১৩ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১০ সফর ১৪৪২

চিরতরে ছুটি মিলল ঝাড়ুদারের

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী   

৭ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চিরতরে ছুটি মিলল ঝাড়ুদারের

রাজশাহীর বিভাগীয় বন কর্মকর্তার বাড়িতে কাজ করা অবস্থায় মারা গেছেন ঝাড়ুদার বাবলা (৫৫)। গত বুধবার বিকেল ৩টার দিকে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়। এর আগে তিনি কর্মকর্তার কাছে ছুটির কথা বলেছিলেন। কিন্তু, করোনা এবং ঈদ গেলেও ছুুটি পাননি।

বাবলাকে ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিভাগীয় বন কর্মকর্তা আহাম্মেদ নিয়ামুর রহমান তাঁর সরকারি বাসভবনের কাজে নিয়ে এসেছিলেন। শুধু বাবলা নয়, তাঁর মতো ১০ জন কর্মচারীকে দিয়ে করোনার মধ্যেও বাড়ির কাজ করাচ্ছেন এই কর্মকর্তা। এ নিয়ে কালের কণ্ঠে গত ১৩ এপ্রিল ‘কর্মচারীদের দিয়ে বাড়ির কাজ করাচ্ছেন কর্মকর্তা’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। কিন্তু এরপরেও পরিস্থিতি বদলায়নি। বাবলার মৃত্যুর পর কর্মচারীদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তাঁরা ঘটনার তদন্তের দাবি জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুুুক এক কর্মচারী অভিযোগ করেন, বাবলা গত বুধবার বিকেলে ওই বাড়িতে কাজ করা অবস্থায় মারা যান। পরে তড়িঘড়ি করে তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। বাবলা আগে থেকে অসুস্থ থাকলেও তাঁকে দিয়ে জোর করে বাড়ির কাজ করাতেন কর্মকর্তার স্ত্রী। ফলে তিনি ঈদের ছুটিও ভোগ করতে পারেননি।

বিভাগীয় বন কর্মকর্তা নিয়ামুর রহমান বলেন, ‘১০ জন বাসার কাজ করছে এটা ঠিক নয়। তবে দু-একজন জরুরি প্রয়োজনে এসে কাজ করে। আবার চলে যায়। কাউকে জোর করে কাজ করানো হয় না। বাবলা অসুস্থ অবস্থায় মারা গেছেন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা