kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ কার্তিক ১৪২৭। ২৯ অক্টোবর ২০২০। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

নিরাপত্তাহীনতায় দুই সাংবাদিক

বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি   

৬ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে দুই সাংবাদিক নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। একজনকে অপহরণের চার ঘণ্টা পর ছনুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশিদ চৌধুরীর বাড়ি থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। আরেকজনের বিরুদ্ধে স্থানীয় সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরীর বিরুদ্ধে ফেসবুকে অপপ্রচার ছড়ানোর অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

ওই দুই সাংবাদিক হলেন দৈনিক পূর্বদেশের নিজস্ব প্রতিবেদক মো. ফারুক আব্দুল্লাহ এবং একুশে পত্রিকার বাঁশখালী প্রতিনিধি মো. বেলাল উদ্দিন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ফারুক আব্দুল্লাহর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছেন ছাত্রলীগকর্মী কালীপুরের মোরশেদুর রহমান। এদিকে উদ্ধার হওয়ার পর অপহৃত বেলাল উদ্দিন বাদী হয়ে চেয়ারম্যানের বাহিনীর পাঁচ সন্ত্রাসীর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

সাংবাদিক বেলাল উদ্দিন জানান, গত ৩ আগস্ট সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার পথে ছনুয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশিদ চৌধুরীর ছত্রচ্ছায়ায় থাকা সন্ত্রাসী আশেকুর রহমান, ছৈয়দ মোস্তফা, মিয়া হোসেন, আশরাফ হোসেন, নজরুল ইসলামসহ ১০-১২ জন তাঁকে মুখ বেঁধে চেয়ারম্যানের বাড়িতে নিয়ে যায়। এ সময় তাঁকে বেধড়ক মারধর করা হয়। অন্য সাংবাদিকদের মাধ্যমে খবর পেয়ে পুলিশ রাত ১১টার দিকে তাঁকে উদ্ধার করে।

ছনুয়া ইউপি চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ চৌধুরী বলেন, ‘আমার কোনো লোক তাকে অপহরণ করেনি। আমার কোনো লোক এলাকায় সন্ত্রাসী কাজ করে না। আমি সন্ত্রাসকে ঘৃণা করি।’

সাংবাদিক ফারুক আব্দুল্লাহ জানান, মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলীর দাফনের সময় রাষ্ট্রীয় সম্মাননা না দেওয়া নিয়ে ফেসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি। এ ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। হুমকি-ধমকিও দেওয়া হচ্ছে। এ মামলার বাদী মোরশেদুর রহমান বলেন, সাংবাদিক ফারুক আব্দুল্লাহ স্থানীয় সংসদ সদস্যকে ইঙ্গিত করে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে সম্মানহানি করেছেন। তাঁর অনুসারী হিসেবে তিনি মামলা করেছেন।

মন্তব্য