kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

কাঁচা ধান এখন গোখাদ্য

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধি   

১৬ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রাজশাহীর বাঘায় পদ্মার ভাঙনের ভয়ে গোখাদ্যের জন্য কাঁচা ধান কেটে নিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা। গত মঙ্গলবার চকরাজাপুর ইউনিয়নের কালিদাসখালী মাঠে এক কৃষককে কাঁচা ধান কাটতে দেখা গেছে।

কৃষক ফজল শেখ জানান, কালিদাসখালী মাঠে তাঁর ছয় বিঘা জমি ছিল। ভাঙতে ভাঙতে প্রায় সব পদ্মায় চলে গেছে। আর মাত্র ১০ কাঠার মতো জমি বাকি রয়েছে। এই জমিতে তিনি আমন ধান লাগিয়েছিলেন। সেই ধানে থোড় (কচি ধান) এসেছে। কিন্তু পদ্মার ভাঙনে তো জমি চলেই যাচ্ছে। কাঁচা ধান কেটে নিয়ে গেলে অন্তত গরুকে খাওয়ানো যাবে বলে সান্ত্বনা খুঁজছেন তিনি। তাঁর মতো আরো অনেক কৃষক গোখাদ্যের জন্য কাঁচা ধান কেটে নিয়ে যাচ্ছেন বলে জানান ফজল শেখ।

কৃষক ফজল শেখের পরিবারের সদস্য সংখ্যা পাঁচজন। বসতবাড়িটি ভাঙন থেকে ৩০০ মিটার দূরে। হয়তো বাড়িও অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যেতে হবে। কিন্তু কোথায় যাবেন। তাঁর তো অন্য কোথাও জমি নেই। এদিকে বাড়িতে চারটি গরু ও ছয়টি ছাগল রয়েছে। এগুলো নিয়েও চিন্তায় আছেন।

চকরাজাপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য শহিদুল ইসলাম বলেন, এই ওয়ার্ডে সাড়ে তিন শতাধিক পরিবার ছিল। পদ্মার ভাঙনে গত বন্যায় ও এবারের বন্যায় দুই শতাধিক পরিবার অন্যত্র চলে গেছে।

চকরাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজুল আযম বলেন, ‘ভাঙনের বিষয়ে কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা