kalerkantho

শুক্রবার। ১৭ আশ্বিন ১৪২৭। ২ অক্টোবর ২০২০। ১৪ সফর ১৪৪২

বরিশাল

স্বাস্থ্যবিধি মানা সম্ভব হবে না

রফিকুল ইসলাম, বরিশাল   

৯ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকির মধ্যে সারা দেশের মতো বিভাগীয় শহর বরিশালেও কোরবানির পশুর হাট বসবে। তবে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, কোরবানির পশুর হাট বসিয়ে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি পুরোপুরি মানা সম্ভব নয়। গত রোজার ঈদে ব্যক্তিগত পরিবহনের নামে মানুষকে ঢাকা ছাড়ার সুযোগ দেওয়া হয়। এর প্রভাবে ঈদের পর হু হু করে করোনার প্রাদুর্ভাব বাড়তে শুরু করে। তবে স্বাস্থ্যবিধি যাতে মানা হয় সেদিকে কঠোর নজরদারি রাখা হবে বলে দাবি করছে হাট কর্তৃপক্ষ।

তারা বলছে, মুখে মাস্ক পরা, হাত ধোয়া ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার পাশাপাশি হাটজুড়ে থাকবে বাড়তি সতর্কতা। হাটে ভিড় যাতে না হয় সেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নির্দিষ্ট সংখ্যক মানুষকে একসঙ্গে হাটে ঢুকতে দেওয়া হবে। হাটের প্রবেশপথ ও বেরোনোর পথ আলাদা থাকবে। এ ছাড়া তাপমাত্রা পরিমাপ করার জন্য সার্বক্ষণিক হাটে অবস্থান করবেন স্বাস্থ্যকর্মীরা। এবার আর রাস্তার ওপরে হাট বসতে দেওয়া হবে না বলে নিশ্চিত করেছে কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৩১ জুলাই বা ১ আগস্ট ঈদুল আজহা উদ্যাপিত হতে পারে। বরিশাল জেলা ও সিটি করপোরেশন মিলিয়ে গত বছর ৬৬ স্থানে পশুর হাট বসেছিল। এর মধ্যে ২৫টি স্থায়ী ও ৩৫টি অস্থায়ী হাট ছিল। অন্যতম হাটগুলো ছিল বরিশাল নগরীর রুপাতলী, জাগুয়া, বাকেরগঞ্জের বোয়ালিয়া, কালীগঞ্জ ও বানারীপাড়ার গুয়াচিত্রা গরুরহাট। তবে এবার হাটের সংখ্য কিছুটা কম হওয়ার কথা রয়েছে।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ডা. জাহিদ হোসেন বলেন, ‘করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর পর থেকে এ পর্যন্ত যত ধরনের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে তার প্রতিটিতে সমন্বয়হীনতা লক্ষ করা গেছে। আমরা দেখেছি সর্বশেষ ঈদের ছুটিতে জনগণের যাতায়াত নিয়ন্ত্রণ না করার কারণে করোনাভাইরাস সংক্রমণ কিভাবে বেড়েছে। বরিশালের ২৭টি ওয়ার্ড রেড জোন ঘোষণার পরও লকডাউন হচ্ছে না। এমন পরিস্থিতিতে পশুর হাটে ক্রেতা-বিক্রেতা কতটা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে, তা দেখার বিষয়।’

বাকেরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাধবী রায় বলেন, ‘পশুর হাটের ব্যাপারে আমরা কিছু বিষয় নিয়ে ভাবছি। ক্রেতা-বিক্রেতার দূরত্ব রাখা, অসুস্থ ব্যক্তিকে ঢুকতে না দেওয়া, মাস্ক পরতে বাধ্য করার বিষয়গুলো প্রাধান্য দেওয়া হবে। পরিকল্পনাগুলো বাস্তবায়নের জন্য এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছি। ক্রেতা-বিক্রেতাদের সচেতন করতে সেগুলো মাইকে প্রচারের পরিকল্পনা রয়েছে। তা ছাড়া হাটের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি ভিড় সামলাতে পুলিশের সাহায্য নেওয়া হবে।’

বরিশাল বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ডা. শ্যামল কৃষ্ণ মণ্ডল বলেন, ‘কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের ফলে আক্রান্তের পাশাপাশি মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। এপ্রিলে করোনা শনাক্ত হয় ১১৬ জনের আর মারা যায় পাঁচজন; মে মাসে শনাক্ত হয় ৫৬৯ জন, মারা যায় ১০ জন; আর জুন মাসে শনাক্ত হয় দুই হাজার ৮৪৮ জন, মারা যায় ৩৭ জন। ঈদের সময় ঢাকা থেকে যারা এসেছে তাদের মাধ্যমে সংক্রমণ বেড়েছে। আসছে ঈদুল আজহায়ও সংক্রমণের হার বাড়বে।’ 

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক বদিউজ্জামান বলেন, ‘কোরবানির পশুর হাটের সঙ্গে গ্রামীণ অর্থনীতির একটা যোগসূত্র রয়েছে। গ্রামের মানুষ এই ঈদকে লক্ষ্য করে বাড়িতে পশু পালন করে। মৌসুমভিত্তিক পশুপালন অর্থনীতিতে বিশেষ ভূমিকা রাখছে। তা ছাড়া কোরবানির ওপরে চামড়াশিল্পও অনেকটা নির্ভরশীল? তাই দুই দিক রক্ষা করতে এবার কোরাবনির পশুর হাটের ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি অনলাইন হাটের ওপর জোর দেওয়া উচিত বলে মনে করছি?’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা