kalerkantho

শনিবার । ৩১ শ্রাবণ ১৪২৭। ১৫ আগস্ট ২০২০ । ২৪ জিলহজ ১৪৪১

করোনা উপসর্গে মৃত্যু না হত্যা

গাইবান্ধা প্রতিনিধি   

৮ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে জেসমিন আক্তার প্রিয়া নামের এক তরুণী গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ উঠেছে।

স্বামীর বাড়ির লোকজন জানায়, তিনি করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। তবে বাবার বাড়ির লোকজন জানায়, তাঁকে হত্যা করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টায় গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মারা যান জেসমিন। তিনি উপজেলার ফুলবাড়ী ইউনিয়নের ছোট সাতাইল বাতাইল ফুটানি বাজার এলাকার মমিনুল ইসলামের স্ত্রী। জেসমিন গোবিন্দগঞ্জ পৌর এলাকার বোয়ালিয়ার মৃত নূর আলম ও মরিয়ম বেগমের

মেয়ে।

মা মরিয়ম বেগম অভিযোগ করেন, জেসমিনকে নির্যাতন করে হত্যা করেছে স্বামীর পরিবার। এ অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ জেসমিনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা জেলা মর্গে পাঠিয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা. রেজাউল করিম জানান, ওই তরুণী জ্বর-সর্দি নিয়ে সোমবার দুপুরে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তাঁর শরীরের

কোথাও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মেহেদী হাসান জানান, ওই তরুণী করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন বলে হাসপাতাল থেকে প্রত্যয়ন দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তাঁর মা হত্যার অভিযোগ করায় লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পেলে বিস্তারিত বলা যাবে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা