kalerkantho

সোমবার । ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭। ১০ আগস্ট ২০২০ । ১৯ জিলহজ ১৪৪১

মিঠাপুকুরে ক্লিনিকে প্রসূতির মৃত্যু, লাখ টাকায় রফা

রংপুর অফিস ও আঞ্চলিক প্রতিনিধি   

৮ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রংপুরের মিঠাপুকুরে একটি ক্লিনিকে অস্ত্রোপচারের (সিজার) সময় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ স্বজনরা ক্লিনিকটি ঘেরাও করে ভাঙচুরের চেষ্টা চালায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। গত সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। পরে এক লাখ টাকায় বিষয়টি মীমাংসা করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

ওই প্রসূতির নাম আকলিমা বেগম সাথী (৩০)। তিনি উপজেলার রাণীপুকুর ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের রাশেদ মণ্ডলের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী ও প্রসূতির স্বজনরা জানায়, স্ত্রী সাথীর প্রসব ব্যথা উঠলে সোমবার দুপুরে তাঁকে গড়েরমাথা এলাকায় রয়েল হেলথ সিটি হাসপাতালে ভর্তি করান রাশেদ। সেখানে স্বাভাবিকভাবে প্রসব হবে না বলে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ জানায়। তাদের পরামর্শে সন্ধ্যায় প্রসূতির অস্ত্রোপচার শুরু হয়। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে কন্যাসন্তানের জন্ম দেন সাথী। কিন্তু এর কিছুক্ষণ পরই তিনি মারা যান।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পরে কাউকে কিছু বুঝতে না দিয়ে অস্ত্রোপচার কক্ষ থেকে সাথীর লাশ বের করে তড়িঘড়ি করে অ্যাম্বুল্যান্সে রংপুর শহরের দিকে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ। পরে স্বজনরা টের পেয়ে অ্যাম্বুল্যান্সটি আটকে বাড়িতে লাশ নিয়ে যায়। এ সময় ক্লিনিকের লোকজন পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে স্বজনরা ওই ক্লিনিক ঘেরাও করে।

পরে এক লাখ টাকায় বিষয়টি মীমাংসা করা হয় বলে অভিযোগ। তবে টাকা নেওয়ার কথা অস্বীকার করেছেন রাশেদ। ওই ক্লিনিকের ব্যবস্থাপক ইবনে সবুজ বলেন, ‘সিজার করার ৪০ মিনিট পর প্রসূতির মৃত্যু ঘটে। পরে স্বজনরা ক্লিনিক ঘেরাও করলে রফাদফা করে বিষয়টি মীমাংসা করা হয়েছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা